অন্যরকম ফিফটির সামনে মাশরাফি

33

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে আগামীকাল মাঠে নামছে বাংলাদেশ। এতে গর্বের এক ল্যান্ডমার্কের সামনে রয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। আগামীকাল ইস্ট লন্ডন মাঠে বাংলাদেশের অধিনায়ক হিসেবে ৫০ ম্যাচ পূর্ণ হবে তার। ওয়ানডেতে বাংলাদেশ দলকে ৫০ ম্যাচে নেতৃত্ব দেয়ার তৃতীয় নজির হবে এটি। এর আগে হাবিবুল বাশার (৬৯) ও বর্তমান সহ-অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের (৫০) রয়েছে এমন গৌরব। ওয়ানডে ইতিহাসে কোনো দেশকে ৫০ ওয়ানডেতে নেতৃত্ব দেয়া ৫৩তম অধিনায়ক হতে যাচ্ছেন মাশরাফি।

২০০৯-এ প্রথমবার বাংলাদেশ দলের নেতৃত্ব ওঠে মাশরাফির হাতে। কিন্তু ওয়স্টে ইন্ডিজ সফরে প্রথম টেস্ট চলাকালে ইনজুরিতে পড়েন মাশরাফি। ক্যারিয়ারে বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক হিসেবে ওটাই ছিল মাশরাফির একমাত্র টেস্ট। পরে সফরে বাংলাদেশ দলের নেতৃত্ব দেন সাকিব আল হাসান। ওয়ানডে অধিনায়ক হিসেবে মাশরাফির অভিষেক ২০১০-এ। আর মাশরাফির নেতৃত্বে বৃস্টলে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ঐতিহাসিক জয় দেখে বাংলাদেশ। কিন্তু ইনজুরির কারণে ২০১১’র বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়েন তিনি। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে হোম সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ব্যাট হাতে ১৫ রান করেন মাশরাফি। কিন্তু পরে এক ওভার বোলিং শেষে ইনজুরি নিয়ে মাঠ ছাড়েন ‘নড়াইল এক্সপ্রেস’ খ্যাত এ টাইগার পেসার। এতে বাংলাদেশ দলকে নেতৃত্ব দেন সাকিব। পরে ২০১৪’র ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর পর্যন্ত্ত বাংলাদেশ ওয়ানডে দলকে নেতৃত্ব দেন মুশফিকুর রহীম। তবে ২০১৫’র বিশ্বকাপের আগে ফের বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের নেতৃত্ব তুলে দেয়া হয় মাশরাফি বিন মুর্তজার হাতে। আর মাশরাফির নেতৃত্বে বাংলাদেশ দেখে দারুণ সাফল্য। ২০১৫’র বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছে বাংলাদেশ। নিজ মাটিতে শক্তিধর পাকিস্তান, ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টানা তিন ওয়ানডে সিরিজ জেতে টাইগাররা। আর আইসিসির অভিজাত ওয়ানডে আসর চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে কুড়ায় সেমিফাইনালের গৌরব। এ সময় র‌্যাঙ্কিংয়ের ৯ থেকে ষষ্ঠ স্থানে উঠে আসে বাংলাদেশ। আর সর্বশেষ ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশের অবস্থান সপ্তম।
ক্যারিয়ারে বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের অধিনায়ক হিসেবে ৪৯ ম্যাচের ২৭টিতে জয় দেখেছেন মাশরাফি। এতে অধিনায়ক মাশরাফির হার ২০ ম্যাচে। তার জয়ের অনুপাত বাংলাদেশের সেরা ৫৭.৪৪।
বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক
খেলোয়াড় ম্যাচ জয় হার পণ্ড জয়ের অনুপাত (%)
হাবিবুল বাশার সুমন ৬৯ ২৯ ৪০ ০ ৪২.০২
সাকিব আল হাসান ৫০ ২৩ ২৬ ১ ৪৬.৯৩
মাশরাফি বিন মুর্তজা ৪৯ ২৭ ২০ ২ ৫৭.৪৪
মোহাম্মদ আশরাফুল ৩৮ ৮ ৩০ ০ ২১.০৫
মুশফিকুর রহীম ৩৭ ১১ ২৪ ২ ৩১.৪২
খালেদ মাসুদ পাইলট ৩০ ৪ ২৪ ২ ১৪.২৮
আমিনুল ইসলাম বুলবুল ১৬ ২ ১৪ ১ ২.৫০
আকরাম খান ১৫ ১ ১৪ ০ ৬.৬৬
খালেদ মাহমুদ সুজন ১৫ ০ ১৫ ০ ০০.০০
গাজী আশরাফ লিপু ৭ ০ ৭ ০ ০০.০০
নাঈমুর রহমান দুর্জয় ৪ ০ ৪ ০ ০০.০০
মিনহাজুল আবেদীন নান্নু ২ ০ ২ ০ ০.০০
রাজিন সালেহ ২ ০ ২ ০ ০০.০০