‘আদিবাসীদের ওপর বৈরী আচরণের মাত্রা অতীতের রেকর্ড ভেঙেছে’

23

বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরামের চেয়ারম্যান সন্তু লারমা অভিযোগ করেছেন, সরকার আদিবাসীদের প্রতি বৈরী ও দায়িত্বহীন আচরণ করছে। এসব বৈরী আচরণ অতীতের সব রেকর্ড ভেঙেছে। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০০৯ সালে আদিবাসী দিবসের বাণীতে ‘আদিবাসী অধিকার ঘোষণাপত্র’ বাস্তবায়নের ঘোষণা দিলেও তার বাস্তবায়ন এখনও হয়নি। শনিবার জাতিসংঘ আদিবাসী বিষয়ক ঘোষণাপত্রের এক দশক ও আদিবাসী দিবস উদযাপন উপলক্ষে রাজধানীর সুন্দরবন হোটেলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব অভিযোগ করেন। সংবাদ সম্মেলনে আদিবাসীদের ওপর নিপীড়নের নানা চিত্র তুলে ধরে এই আদিবাসী নেতা বলেন, আদিবাসীদের ভূমি নির্বিঘেœ বেদখল হয়ে যাচ্ছে। অহঙ্কার ও ক্ষমতার দাপটে পাহাড়ি আদিবাসীরা আরো অসহায় হয়ে পড়ছে। মানবাধিকার লঙ্ঘনের কোনো প্রতিকার নেই। যেন আদিবাসী ও প্রান্তিক মানুষের জন্য কোথাও কেউ নেই। রাষ্ট্র ও সরকার আদিবাসীদের কাছ থেকে অনেক দূরে চলে যাচ্ছে। সন্তু লারমা বলেন, আদিবাসীদের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী হিসেবে আখ্যা দেওয়ায় দেশের ৩০ লাখ আদিবাসী জনগণ মানবাধিকার ও মৌলিক স্বাধীনতা থেকে ‘বঞ্চিত’ হয়েছেন। সম্পূর্ণ এক অনিশ্চিত ভবিষ্যতের দিকে আদিবাসী ভাষা, সংস্কৃতি ও জীবনধারাকে ঠেলে দেওয়া হয়েছে। তাদের নিজভূমিতে সংখ্যালঘুতে পরিণত করা হয়েছে। এর ফলে আত্ম পরিচয় ও সংস্কৃতি নিয়ে অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখা কঠিন হয়ে পড়েছে।