আমরা হারার আগে হারবো না

34

আমরা নির্দিষ্ট লক্ষ্য ঠিক করে খেলছি না। ম্যাচ বাই ম্যাচ ভালো করার চেষ্টা করবো। আমাদের ক্ষমতা আছে অঘটন ঘটানোর- কথাগুলো বাংলাদেশ হকি দলের অধিনায়ক রাসেল মাহমুদ জিমির। আগামীকাল থেকে শুরু হতে যাওয়া এশিয়া কাপ হকির আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ দলের লক্ষ্য সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি আরো বলেন, আমরা হারার আগে হারবো না। খেলবো দেশের জন্য, দেশের হকির ভালোর জন্য।
আগের দিন গা গরমের ম্যাচে জাপানকে হারিয়েছে বাংলাদেশ দল। হকির বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে জাপানের অবস্থান ১৭তম। তাই র‌্যাঙ্কিংয়ে ৩৪ নম্বরে থাকা বাংলাদেশ এই জয়ে এশিয়া কাপের আগে আত্মবিশ্বাসের মাত্রাটা ভালোভাবেই বাড়িয়ে নিয়েছে। রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে হাজির করা হয়েছিলো বাংলাদেশসহ টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণকারী আট দলের অধিনায়ককে। র‌্যাঙ্কিংয়ের হিসেবে সবার তলানিতে স্বাগতিকরা। কিন্তু অধিনায়ক রাসেল মাহমুদ জিমিকে দেখলে সেটা বুঝার উপায় ছিলো না গতকালের এই অনুষ্ঠানে। বাংলাদেশের গ্রুপেই রয়েছে এশিয়ার দুই সেরা দল ভারত ওপাকিস্তান। আছে জাপানও। অপর গ্রুপে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে আছে মালয়েশিয়া, ওমান ও চীন।
সংবাদ সম্মেলন তখনো শুরু হয়নি। হোটেল লবিতে দাঁড়িয়ে বাংলাদেশ অধিনায়ক রাসেল মাহমুদ জিমি এবং পাকিস্তান অধিনায়ক মোহাম্মদ ইরফান। পোশাকে চোখ না পড়লে বোঝার উপায় নেই যে তারা আগামীকালের প্রতিপক্ষ। আসলে টুর্নামেন্ট শুরুর আগেই প্রতিপক্ষ নিয়ে ভাবতে চান না বাংলাদেশ অধিনায়ক। এমনকি প্রতিপক্ষ জাপান কিংবা ভারতকে নিয়ে দুশ্চিন্তা নেই তার মাথায়। আগামীকাল থেকে শুরু হবে এশিয়ার মর্যাদার হকি টুর্নামেন্ট এশিয়া কাপের দশম আসর। দীর্ঘ ৩২ বছর পর টুর্নামেন্টের আয়োজক হয়েছে বাংলাদেশ। সন্ধ্যা সাড়ে ৫টায় পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু হবে স্বাগতিকদের। তার আগে বিকাল তিনটায় ভারতের মুখোমুখি হবে জাপান।
এশিয়া কাপ সামনে রেখে দীর্ঘদিন ধরেই অনুশীলন করেছে জিমি, চয়নরা। এশিয়া কাপ উপলক্ষ্যে যতটুকু প্রস্তুতি হয়েছে তাতে সন্তুষ্ট বাংলাদেশ অধিনায়ক। তবে টুর্নামেন্টে নিজেদের লক্ষ্য সম্পর্কে জিমি বলেছেন, ‘সবাই চায় চ্যাম্পিয়ন হতে। আমি বলব আমরা ভালো খেলতে চাই। আমরা যদি নিজেদের সেরাটা খেলতে পারি যে কোনো দলকে হারানো সম্ভব।’
জিমি, চয়নদের ভালোই চেনা পাকিস্তান অধিনায়ক মোহাম্মদ ইরফানের। সেটা বোঝা গেল সংবাদ সম্মেলনে তার বক্তব্যে। এমনকি জিমি-চয়নরা যে জার্মান লীগে খেলেছে সেই তথ্যও জানেন তিনি। এশিয়া কাপে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ তিনবারের চ্যাম্পিয়ন পাকিস্তান। কিন্তু পাকিস্তান অধিনায়কের কণ্ঠে বড়ত্বের সুর নেই বরং প্রতিটি দলকেই সমান সমীহ করে কথা বলেন ইরফান। বাংলাদেশ-পাকিস্তানের ম্যাচ যে একটি ভালো ম্যাচ হবে সেটাও উল্লেখ করেন তিনি। বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে পারফরম্যান্স ভালো ছিল না পাকিস্তানের। সেখানে ভারতের কাছে বড় ব্যবধানেই হেরেছে দলটি। তবে এশিয়া কাপে ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয়ই শুনিয়েছেন পাকিস্তান অধিনায়কের কন্ঠে। দলে সিনিয়রদের ফিরিয়ে আনা হয়েছে বলেও জানান তিনি।
সংবাদ সম্মেলনে দুই গ্রুপের অধিনায়করে দুই পাশে বসানো হয়েছিল। পাশাপাশিই বসেছিলেন ভারত, বাংলাদেশ আর পাকিস্তানের অধিনায়ক। বাংলাদেশ-পাকিস্তানের অধিনায়ক যখন এশিয়া কাপে নিজেদের লক্ষ্য, প্রস্তুতি নিয়ে কথা বলেছেন, তখন মনোযোগ দিয়ে তা শুনছিলেন ভারত অধিনায়ক মানপ্রিত সিং। টুর্নামেন্টে নিজেদের লক্ষ্য-প্রস্তুতি সম্পর্কে মানপ্রিত বলেন, ‘আমাদের প্রস্তুতি খুব ভালো হয়েছে। জাপানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে আমাদের টুর্নামেন্ট শুরু। এরপর স্বাগতিক বাংলাদেশ, গ্রুপের শেষ ম্যাচ খেলব পাকিস্তানের বিপক্ষে। টুর্নামেন্টে আমাদের লক্ষ্য ম্যাচ বাই ম্যাচ ভালো খেলা এবং অবশ্যই জেতার জন্যই আমরা মাঠে নামব।’
ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ মানেই বাড়তি উত্তেজনা-উদ্দীপনা। এই ম্যাচটি নিয়ে মানপ্রিত নিজে কতটা উদীপ্ত-প্রশ্নের জবাবে ভারত অধিনায়ক বলেন, ‘আর দশটা প্রতিপক্ষের মতো পাকিস্তানও আমাদের কাছে সমান। এই ম্যাচ নিয়ে তেমন কিছু ভাবছি না। অন্য দলগুলোর বিপক্ষে যেভাবে খেলি, সেভাবেই খেলব।’ একজন এশিয়ান হিসেবে এশিয়া কাপে খেলতে পারাটাও অনেক বড় ব্যাপার বলে মনে করেন মানপ্রিত।
এশিয়া কাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন দক্ষিণ কোরিয়া। ২০১৩ সালে মালয়েশিয়াতে অনুষ্ঠিত সবশেষ এশিয়া কাপের ফাইনালে ভারতকে ৪-৩ গোলে হারিয়ে সর্বাধিক চতুর্থবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হয় দলটি। দক্ষিণ কোরিয়ার অধিনায়ক ইউ হাই সিক সোজা সাপ্টাই বলেন, টুর্নামেন্টে এবারো তাদের লক্ষ্য চ্যাম্পিয়নশিপ। এশিয়া কাপে চ্যাম্পিয়ন হয়েই বিশ্বকাপে যেতে চান এমন কথাও বলেন কোরিয়ার অধিনায়ক।

‘খেলাই পারে বিশ্বকে একত্রিত করতে’
অধিনায়কদের পরিচয় করিয়ে দেয়ার চাইতে ট্রফি উন্মোচনই ছিল কালকের অনুষ্ঠানের আসল বিষয়। সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের কিংবদন্তী খেলোয়াড়, হকি ফেডারেশনের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সাদেক। স্বাগত বক্তব্য রাখেন তিনি।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত এশিয়া হকি ফেডারেশনের (এএইচএফ) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা তৈয়ব ইকরাম বেম সাবলীল বক্তব্য রাখেন। এশিয়া কাপ নতুনভাবে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশকে পরিচিত করে তুলবে এমনটাই আশা তার। কারণ এবার স্টার স্পোর্টস এ আসর সরাসরি সম্প্রচার করবো আরো বড় পরিসরে। মালয়েশিয়ার নাগরিক তৈয়ব আকরাম বলেন, ‘বিশ্বে এখন যে রকম অবস্থা চলছে তাতে খেলার গুরুত্ব অনেক। খেলাই পারে বিশ্বকে এক কাতারে নিয়ে আসতে।’ তিনি আরো যোগ করেন, ‘বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন কর্তারাদের চাহিদার ফসল এই এশিয়া কাপ। তারা তাদের কথা রেখেছে। এএইচএফের প্রধান শর্ত ছিল ফ্লাডলাইট। সেটি তারা স্থাপন করতে পেরেছে। অবকাঠামোগত অনেক উন্নয়ন হয়েছে। বাংলাদেশ একসময় তাদের কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌছাবে বলে আমার বিশ্বাস। এ সকল উন্নতির জন্য ক্রীড়ামন্ত্রণালয়সহ সকল সহযোগি মন্ত্রণালয় এবং বিশেষ করে ক্রীড়াবান্ধব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি শুভেচ্ছা রইল।’ দল পরিচিতি এবং ট্রফি উন্মোচন অনুষ্ঠানে এছাড়াও এশিয়ান হকি ফেডারেশনের সদস্য বাংলাদেশের আব্দুর রশিদ সিকদার, স্পন্সর হিরো মোটরসের নির্বাহী প্রধান কর্তকর্তা অজয় সিনহা, এশিয়ান হকি ফেডারেশনের ইভেন্ট অ্যান্ড স্পোর্টস ডিরেক্টর এলিজাবেথ জোন্স।