‘আমি এখন বিয়ের ভাবনা মাথায়ও আনিনা’

35

মডেলিং দিয়ে শুরু করলেও এখন নাটকের পরিচিত অভিনেত্রী সালহা খানম নাদিয়া। মিডিয়াতে তার আগমন হয়েছিলো ২০০৮ সালে। মোস্তফা সরোয়ার ফারুকীর একটি প্রামাণ্য নাটকের মাধ্যমে অভিনয় শুরু। এরপর থেকে একের পর এক নাটক এবং বিজ্ঞাপন দিয়ে দর্শকদের মনে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি। বাবা আইয়ূব খান ও মা ডালিয়া পারভীনের আদরের প্রথম সন্তান নাদিয়া। মিডিয়ায় কাজ করার পিছনে মায়ের উৎসাহ পেয়েছেন অনেক। তার ছোট দুই ভাই রয়েছে। যাদের মধ্যে একজন থিয়েটার থেকে অভিনয় শিখে ইতিমধ্যেই মিডিয়াতে নাম লিখিয়েছেন। খুব শিগগিরই বড় পর্দায় নায়ক হিসেবে দেখা যাবে তাকে। আরেক ছোট ভাই জাতীয় ক্রিকেট দলে অংশ নেয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন। দিনকাল কেমন যাচ্ছে জানতে চাইলে নাদিয়া বলেন, বেশ ভালো। সামনের ঈদের কাজ নিয়ে সময় কেটে যাচ্ছে। গত ঈদে বেশ কিছু নাটকে কাজ করেছেন। সাড়া কেমন মিলেছে? তিনি বলেন, সাগর জাহানের ‘মাহিনের নীল তোয়ালে’ ও মাহমুদুর রহমান হিমির ‘আবারো’ থেকে খুব সাড়া পেয়েছি। এছাড়া সম্প্রতি একটি নাটক টিভিতে প্রচার হয়েছে। আনন্দ কুটুমের পরিচালনায় ‘আলো আধারের কাব্য’ নামের এ নাটকটি প্রচার হয় এনটিভিতে। এ নাটকটি থেকেও অনেক সাড়া পেয়েছি। এখন ব্যস্ততা কি নিয়ে জানতে চাইলে নাদিয়া বলেন, এখন আমি নাটক নিয়েই খুব ব্যস্ত। ঈদকে সামনে রেখে অনেক নাটকে অভিনয় করছি। এদিকে মাছরাঙা টিভির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে ‘রঙিন ফানুস’ নামে আমার একটি নাটক প্রচার হয়েছে। যেখানে আমি, জোভান, মুনিরা মিঠু ও মাজনুন মিজান অভিনয় করেছি। নাটকটি রচনা করেছেন আসাদুজ্জামান সোহাগ আর পরিচালনায় ছিলেন অজয় পোদ্দার। এছাড়া দুটি ধারাবাহিক এখন প্রচার হচ্ছে। এর একটি অরণ্য ইমনের ‘ফ্যামিলি ফ্যান্টাসি’ ও অন্যটি সাজ্জাদ সুমনের ‘ছলে বলে কৌশলে’। এছাড়া আরো অভিনয় করেছি ‘অক্সিজেন’, ‘ঊনিশ কুড়ি একুশ’ ও ‘বিন্দু ও বৃত্ত’ শীর্ষক নাটকগুলোতে। রোজার ঈদে অভিনয় করা কোনো নাটকের সিক্যুয়াল কোরবানির ঈদে হবে কিনা জানতে চাইলে নাদিয়া বলেন, হ্যা। বাছাই করা কিছু কাজের সিক্যুয়াল হবে। যেগুলো গত ঈদে বেশ সাড়া পেয়েছিল। তারমধ্যে দর্শকপ্রিয়তা পাওয়া একটি নাটক ‘মাহিনের নীল তোয়ালে’র সিক্যুয়ালের কাজটি শীগগিরই শুরু হতে যাচ্ছে। অভিজ্ঞতা থেকে বলুন এখনকার টিভি নাটকের মান কেমন মনে হচ্ছে? উত্তরে নাদিয়া বলেন, আমি নাটকের মান নিয়ে কথা বলার মতো এমন কেউ এখনো হইনি। তবে এটা বলতে পারি যদি সময় নিয়ে কাজ করা যায় তাহলে অনেক ভালো নাটক তৈরি করা সম্ভব আমাদের এখানে। কারণ আমাদের দেশে অনেক ভালো ভালো আর্টিস্ট আর অনেক ভালো ভালো ডিরেক্টর আছে যারা সময় নিয়ে শুটিং করলে অনেক ভালো কিছু নির্মাণ করতে পারবে বলে আমি মনে করি। নাটকের পাশাপাশি নাদিয়াকে মাঝে মাঝে শর্টফিল্মে অভিনয় করতে দেখা যায়। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমি বেশ কয়েকটি শর্টফিল্মে অভিনয় করেছি। যার প্রত্যেকটি দর্শক খুব ভালোভাবে নিয়েছে। বিশেষ করে ‘মায়া’( জোভান আর আমি) ও দূরবীন (তাহসান আর আমি) করে আমি খুব সাড়া পেয়েছি। শর্টফিল্ম দুটির পরিচালনায় ছিলেন ভিকি জাহেদ। সামনে ঈদের জন্য আরেকটি শর্টফিল্মে আমি অভিনয় করেছি। নাম ‘দ্য হিরো’। টাইগার মিডিয়ার ব্যানারে এ শর্টফিল্মটির পরিচালনাও করেছেন ভিকি জাহেদ। নাটক-শর্টফিল্মে অভিনয় করছেন। পাশাপাশি আর কোনো কাজ করেছেন কি? নাদিয়া বলেন, এসবের পাশাপাশি আগে আমি মিউজিক ভিডিওতে কাজ করেছি। এর মধ্যে ‘ইচ্ছে মানুষ’( জোভান আর আমি মডেল হওয়া) শিরোনামের একটি গানের মিউজিক ভিডিও দিয়ে আমি অনেক সাড়া পেয়েছি। সামনে একটি কাজ করার কথা চলছে। স্ক্রিপ্ট ও তারিখ কিছু ঠিক হয়নি। তাই বিস্তারিত বলতে পারছিনা। এদিকে সাম্পতিক সময়ে ‘জুই’ নারিকেল তেল ও ‘যমুনা’ এসির বিজ্ঞাপনে মডেল হয়ে বেশ প্রশংসিত হয়েছেন এ পর্দাকন্যা। সিনেমার ব্যাপারে কি ভাবছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ভালো স্ক্রিপ্ট পেলে অবশ্যই সিনেমায় কাজ করবো। তবে এখন নয়। এ বিষয়ে আমাকে আরো প্রস্তুতি নিতে হবে। আপাতত নাটক, টেলিফিল্ম, শর্টফিল্ম, বিজ্ঞাপন ও মিউজিক ভিডিও ছাড়া অন্য কোনো কাজ করবো না। বিয়ে করা নিয়ে কি ভাবছেন জানতে চাইলে এ অভিনেত্রী বলেন, করা তো দূরে থাক আমি এখন বিয়ের ভাবনা মাথায়ও আনিনা।