আলাপন ‘আমার তৈরি গানে অন্যরা যখন পুরস্কার পায় তখন বেশি ভালো লাগে’

31

জনপ্রিয় গীতিকবি, সুরকার, সংগীত পরিচালক ও শিল্পী শফিক তুহিন। প্রথম গীতিকার হিসেবে সফল তিনি। এরপর একে একে সুরকার, শিল্পী ও সংগীত পরিচালক হিসেবে সফলতার স্বাক্ষর রাখেন। তার গাওয়া প্রথম গান ‘ও আমার প্রাণ পাখি ময়না’ ব্যাপক শ্রোতাপ্রিয়তা পেয়েছে। এরপর অডিও অ্যালবাম ও প্লেব্যাকেও নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছেন শফিক তুহিন। গীতিকবি হিসেবে পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও। সম্প্রতি তিনি সেরা সংগীত পরিচালক হিসেবে চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন। এই নিয়ে তিনবার এ পুরস্কার পেলেন তিনি। পুরস্কারতো পেয়েছেন অনেক। অনুভূতি কেমন? শফিক তুহিন বলেন, আসলে পুরস্কার প্রাপ্তির অনুভূতিতো সব সময়ই ভালো। নতুন কাজ করার উৎসাহটা বেড়ে যায়। এই নিয়ে শিল্পী, সুরকার ও সংগীত পরিচালক হিসেবে তিনবার চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ড পেয়েছি। শ্রোতাদের ভালোবাসার কারণেই এমনটা সম্ভব হয়েছে। অবশ্য আমার সব সময় মনে হয় যেন আমি মাত্র শুরু করেছি। অনেক পথ চলা বাকি রয়েছে এখনও। তবে আমার তৈরি গানে অন্যরা যখন পুরস্কার পায় তখন বেশি ভালো লাগে। ব্যান্ড তারকা জেমস তো আপনার সুর করা গানে তিনবার তিনটি পুরস্কার পেলেন? শফিক তুহিন উত্তরে বলেন, ঠিক তাই। এটা আমার জন্য অনেক বড় ব্যাপার। কারণ ‘দেশা-দ্যা লিডার‘ ছবির ‘দেশা আসছে’ গানটির মাধ্যমে প্রথমবার জাতীয় চলচ্চিত্রর পুরস্কার পান জেমস ভাই। এরপর একই গানের জন্য মেরিল প্রথম আলো পুরস্কার পেয়েছেন তিনি। আর এবার চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ড পেলেন আমার সুরে তার গাওয়া ‘বিধাতা’ গানটির জন্য। আমি খুবই আনন্দিত। কারণ জেমস ভাই আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন শিল্পী। তিনি দেশের প্রথম বড় তিনটি পুরস্কার পেয়েছেন আমার সুর করার গান গেয়ে। আপনিতো ইউরোপ সফরে গিয়েছিলেন। আবারও নাকি যাচ্ছেন? শফিক তুহিন বলেন, আসলে ভালো লাগছিলো না কিছু। চারদিকে কেবল অস্থিরতা। তাই নিজেকে উজ্জিবিত করতেই ইউরোপের কয়েকটি দেশে ঘুরে এসেছি। আবারও যাবো সামনের মাসে। বাকি দেশগুলোতে এবার ঘুরবো। ক্লান্তি কাটিয়ে উজ্জিবিত হয়ে কাজ করতে ভালো লাগে। আর ঘুরাঘুরি আমার একটি শখও বলতে পারেন। এক জীবনে মানুষ সময় খুব কম পায়। তাই সময়টাকে কাজে লাগাতে চাই। গানের বর্তমান ব্যস্ততা কি নিয়ে? শফিক তুহিন বলেন, নতুন বেশ কিছু কাজ করছি। সিনেমার গান করছি। সিঙ্গেল ট্র্যাক করছি। তবে আমার মধ্যে তাড়াহুড়া একদম নেই। আমি ধীরে ধীরে কাজ করতে পছন্দ করি। আর গান কিন্তু তাড়াহুড়া করে হয় না। তাই আস্তে ধীরেই আমার গানগুলো সামনে প্রকাশ পাবে। চলতি সময়ে অডিও ইন্ডাস্ট্রির অবস্থা কেমন দেখছেন? উত্তরে শফিক তুহিন বলেন, ভালো নয় এই মুহুর্তের অবস্থা। আসলে গত এক বছর ধরেই ইন্ডাস্ট্রির অবস্থা চাঙ্গা না। অডিও কোম্পানিগুলো গত বছরের শুরুতে গানে অনেক বিনিয়োগ করেছে। সেই বিনিয়োগ না উঠে আসা পর্যন্ততো  তারা নতুন বিনিয়োগে যেতে পারছে না। এটা একটা বড় কারণ। আবার ওয়েলকাম টিউন থেকেও আয় কমেছে। তবে আমি মনে করি অবস্থা এরকম থাকবে না। খুব শিগগিরই হয়তো পরিবর্তন হবে। এই প্রজন্মের শিল্পী, সুরকার, গীতিকারদের মধ্যে সম্ভাবনা কেমন দেখছেন? শফিক তুহিন বলেন, বেশ ভালো। খারাপ ও ভালো দু ধরনের কাজ হচ্ছে এখন। যারা ভালো কাজ করছে তারাই এগিয়ে যাচ্ছে। আর ভালো গানগুলোই কিন্তু টিকে থাকবে। তবে এখনতো গান শোনার পাশাপাশি দেখার বিষয় হয়ে দাড়িয়েছে। এটা সময়ের দাবি ঠিক আছে। কিন্তু ব্যায়বহুল মিউজিক ভিডিওর যে প্রতিযোগিতা চলছে সেটা আমার পছন্দ নয়। কারণ একটি ভালো মানের কথা-সুরের গান হলে অল্প বাজেটের ভিডিওর মাধ্যমেই তার প্রচারণা সম্ভব। তাই অডিওর প্রতি মনোযোগ না দিয়ে ভিডিওতে জোর দেয়া হচ্ছে বেশি। সবার আগে উচিত মানসম্পন্ন কথা-সুরের প্রতি মনোযোগী হওয়া।