আলাপন ‘চলচ্চিত্রে এখনো স্ট্রাগল করছি’

38

সব ধরনের চরিত্রেই কাজ করার ইচ্ছে আছে আমার। অভিনয়শিল্পী হিসেবে আমি প্রতিমুহুর্তে নতুন গল্প ও চরিত্রের সন্ধান করি। সবসময়ই ভালো কাজ করার চেষ্টা করে যাচ্ছি। নতুন ছবিতে কি ধরনের চরিত্রে কাজ করতে চান জানতে চাইলে এমনভাবে উত্তর দেন ঢাকাই ছবির ব্যস্ত নায়িকা আইরিন সুলতানা। চলচ্চিত্রে নিয়মিত কাজ করছেন। এরইমধ্যে তার অভিনীত বেশকিছু ছবি শেষ হয়েছে। ২০১৩ সালের নভেম্বর মাসে মুক্তি পায় আইরিন অভিনীত প্রথম ছবি ‘ভালোবাসা জিন্দাবাদ’। ছবিটি পরিচালনা করেন দেবাশীষ বিশ্বাস। এ ছবিতে তার বিপরীতে অভিনয় করেন আরিফিন শুভ। আগামী সপ্তাহে সিলেট যাচ্ছেন আইরিন। এর কারণ হিসেবে মানবজমিনকে বলেন, আমি বুলবুল জিলানী পরিচালিত ‘রৌদ্রছায়া’ ছবির বাকি কাজ শেষ করতে সিলেট যাচ্ছি। গত এপ্রিলে এ ছবির কাজ শুরু হয়। এতে আমার বিপরীতে অভিনয় করছেন নিরব। এবারই প্রথম একসঙ্গে কাজ হচ্ছে আমাদের। ছবির প্রেক্ষাপট মুক্তিযুদ্ধ ও দেশ স্বাধীনের পরবর্তী সময়। গল্পটা বর্তমান সময় পর্যন্ত গড়িয়েছে। মুক্তিযুদ্ধকে উপজীব্য করে নির্মিত কোনো ছবিতে এখন পর্যন্ত আমার অভিনয়ের সুযোগ হয়ে ওঠেনি। এটা অবশ্য সরাসরি যুদ্ধের গল্প না। তারপরও এমন একটি কাজের অংশ হতে পেরে খুবই ভালো লাগছে। ছবির বেশিরভাগ কাজ শেষ হয়েছে। সম্প্রতি আইরিন ‘বউ এনে দে’ শিরোনামের একটি গানের ভিডিওতে মডেল হয়ে প্রশংসিত হন। এদিকে তার অভিনীত বেশ কয়েকটি ছবি এখন মুক্তির অপেক্ষায়। এরমধ্যে রয়েছে ওয়াহিদুজ্জামান ডায়মন্ড পরিচালিত ‘শেষ কথা’, সাইফ চন্দনের ‘টার্গেট’, আবু সাইয়ীদের ‘একজন কবির মৃত্যু’। আইরিন বলেন, প্রতিটি ছবিতে আমি ভিন্ন ভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছি। এরমধ্যে ডায়মন্ড ভাইয়ের ছবিতে প্রস্তাব পাবার পরপরই হ্যাঁ করে দিয়েছিলাম। তিনি অনেক বড় মাপের একজন পরিচালক। এ ছবিতে আমার বিপরীতে ওপার বাংলার অভিনেতা সমদর্শী দত্ত অভিনয় করেছেন। আর আমার চরিত্রটিও দর্শক পছন্দ করবেন বলে আশা করছি। ‘একজন কবির মৃত্যু’ ছবির কাজ সম্প্রতি শেষ করেছেন এই অভিনেত্রী। এ ছবিটি নিয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ ছবিতে আমার চরিত্রের নাম নন্দিনী। ছবিটিতে আমি একজন মৃত্যুদূতের চরিত্রে অভিনয় করেছি। ভিন্নধর্মী একটি চরিত্র। ঢাকার আশেপাশে এ ছবির কাজ হয়েছে। আমার বিশ্বাস, গণ-অর্থায়নের ব্যতিক্রমী এই ছবিটি অনেকেরই ভালো লাগবে। এ পর্যন্ত আইরিনকে পর্দায় ‘ভালোবাসা জিন্দাবাদ’, ‘ছেলেটি আবোল তাবোল মেয়েটি পাগল পাগল’, ‘ইউটার্ন’, ‘এক পৃথিবী প্রেম’, ‘মায়াবীনি’ ছবিগুলোতে রোমান্টিক চরিত্রে দেখেছেন দর্শক। সম্প্রতি তিনি পরিচালক শফিকুল ইসলাম সোহেলের ‘ভোলা’ এবং অরণ্য পলাশের ‘গন্তব্য’ নামে নতুন দুটি ছবির বেশকিছু অংশের কাজ শেষ করেছেন। এ ছবি দুটিতে তিনি রোমান্টিকতার গল্প বা চরিত্র থেকে একটু হলেও বেরিয়ে এসেছেন বলে জানিয়েছেন। আইরিন বলেন, নতুন ছবিগুলোর মধ্যে ‘গন্তব্য’ ছবিতে ফেরদৌস ভাইয়ের বিপরীতে জেলের বৌয়ের চরিত্রে অভিনয় করেছি। সাধারণ মানুষের মন ছুঁয়ে যাবার মত একটা গল্প। সঞ্জীবন সিকদারের পথনাটক ‘ও বললো’ থেকে এ ছবির চিত্রনাট্য তৈরি হয়েছে। জেলেপাড়ার পাশাপাশি শহরের একটি গল্পও যোগ করা হয়েছে। সামনে কি ধরনের ছবিতে তাকে অভিনয় করতে দেখা যাবে জানতে চাইলে আইরিন বলেন, নতুন দুটি ছবির কাজের বিষয়ে কথা হয়েছে। ছবি দুটি যথাক্রমে পরিচালনা করবেন আকাশ আচার্য্য এবং হারুনউজ্জামান। ছবি দুটির নাম হচ্ছে ‘আসলে কেউ সুখি নয়’ ও ‘পদ্মায় কর্মী নাই’। দুটি ছবিতে আমার বিপরীতে অভিনয় করবেন সাইমন সাদিক ও সুমিত। খুব শিগগিরই এসব ছবির কাজ শুরু হবে বলে জেনেছি। চুড়ান্ত হলে বিস্তারিত সবাইকে জানাতে পারবো। আর এরইমধ্যে টিভিতে কাজেরও বেশকিছু প্রস্তাব পেয়েছেন আইরিন। তবে তিনি বলেন. ছোটপর্দায় আপাতত কাজ করার ইচ্ছে নেই। চলচ্চিত্রের কাজ নিয়েই ব্যস্ত থাকার ইচ্ছে আমার। চলচ্চিত্রে এখনও স্ট্রাগল করছি। আর সামনে সেটা আরও করে যেতে চাই।

 

 

সূত্র : মানবজমিন অনলাইন পত্রিকা