কঠিন অবস্থায় বাংলাদেশ

23

মাটি কামড়ে পরে থাকলে হয়তো টেস্টটা ড্র করা সম্ভব হতো। ৪২৪ রানের লক্ষ্য তাড়া করে জেতার কোন স্বপ্ন বাংলাদেশের কেউ দেখেনি। ইতিহাসেই এর নজির নেই। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা দেখিয়েছিলেন তারা একদম ফেলনা নন। কিন্তু পচেফস্ট্রমে চতুর্থ দিন বিকেলে মরকেলের জোড়া আঘাতে বাংলাদেশী ক্রিকেটপ্রেমীদের সব স্বপ্ন উবে যাওয়ার পথে। মরকেল তার প্রথম ওভারেই বিদায় করেন বাংলঅদেশের দুই সেরা ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল ও মুমিনুল হককে। এরপর সেট হয়ে যাওয়া ইমরুল কায়েসকে ফেরান কেশব মহারাজ। তিনি ফেরেন ৩২ রানে (৪২ বল, ৫ চার)। আলোর স্বল্পতার জন্য দিনের খেলা শেষ হওয়াতে রক্ষা। না হয় খেলার অবস্থা কী হতো বলা মুশকিল। ব্ংালাদেশ আজ মাঠে নামবে ৩ উইকেটে ৪৯ রান নিয়ে। ক্রিজে আছেন অধিনায়ক মুশফিক ১৬ রান নিয়ে। এরপর নামবেন হযতো লিটন দাস। আরো আছেন মাহমুদুল্লাহ, সাব্বির, মেহেদী মিরাজ। হার এড়াতে হলে এদের যে কোন দুজনকে বুক চিতিয়ে দাঁড়াতে হবে। এখন ড্র করার ¦াশা ফিকে হওয়ায় প্রার্থনা হারের ব্যবধানটা যেন কম হয়।
এর আগে দক্ষিণ আফ্রিকা ৬ উইকেটে ২৪৭ রানে দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে। সর্বোচ্চ ৮১ রান করেন অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসি। বাংলাদেশের পক্ষে বোলিংয়ে সফল সেই উপেক্ষিত মুমিনুল। তিনি নেন ৩ উইকেট। আর মোস্তাফিজ দুটি।