কাউন্সিলর হননি সাবের হোসেন

37

আগেই ধারণা করা হচ্ছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) নির্বাচনে কাউন্সিলর হবেন না সাবেক সভাপতি সাবের হোসেন চৌধুরী। গেল নির্বাচনে তিনি বারিধারা ড্যাজলার্স থেকে কাউন্সিলর ছিলেন। সেই সঙ্গে নির্বাচনের মাঠে ছড়িয়ে ছিলেন উত্তেজনাও। কিন্তু গতকাল বাংলাদেশ বিসিবি নির্বাচনের খসড়া ভোটার তালিকাতে তার নাম ছিল না। তবে তার ক্লাব থেকে কাউন্সিলর হয়েছেন রিয়াজ আহমেদ। সাবেক এই সভাপতি না থাকাতে অনেকটাই প্রতীয়মান যে বিসিবির আসন্ন নির্বাচন হতে যাচ্ছে একেবারেই একতরফা। কারণ নাজমুল হাসান পাপনদের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার মতো নেই কোনো হেভিওয়েট প্রার্থী। তবে কাউন্সিলর হিসেবে বেশ কয়েকটি নাম চমক হয়ে এসেছে। তারা হলেন শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের নয়া কর্ণধার ও বসুন্ধরা গ্রুপের পরিচালক সাফওয়ান সোবহান। এছাড়াও দেশের আরেক কর্পোরেট প্রতিষ্ঠান বেক্সিমকো গ্রুপের সালমান এফ রহমানের ছেলে ও ঢাকা গ্লাডিয়েটর্সের চেয়ারম্যান সায়ান এফ রহমান। ধারণা করা হচ্ছে তারা হয়তো এবার নতুন পরিচালক হিসেবে নির্বাচিত হয়ে আসতে পারেন। গতকাল বিসিবির নির্বাচন কমিশনার ওমর ফারুক ১৬৭ জনের খসড়া তালিকা প্রকাশ করেন। জানা গেছে কয়েকটি জেলা ও প্রতিষ্ঠান থেকে ৫ জন কাউন্সিলরদের নাম পাঠাননি। আজ আপত্তি ও শুনানি শেষ চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হবে।
গত ১০ই সেপ্টেম্বর কাউন্সিলর হওয়ার জন্য বিসিবি থেকে চিঠি পান সাবের হোসেন। চিঠির জবাবেই তিনি কাউন্সিলর পদ থেকে নাম প্রত্যাহার করার বিষয়টি বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনকে চিঠি দিয়ে জানান। কাউন্সিলর না হওয়ার ব্যাখ্যায় তিনি সংবাদ সম্মেলন করে বলেছিলেন, ‘সুপ্রিম কোর্ট ও হাইকোর্ট দুজনই যেহেতু বলছে এই কমিটির কোনো বৈধতা নেই। সেটার অধীনে যদি কোনো প্রক্রিয়া হয়, সে প্রক্রিয়ার বৈধতা নিয়ে একটা প্রশ্ন আসতেই পারে। আমি কথাটি তাদের জানিয়েছি। আমার মনে হয়েছে, সে কারণেই আমি আর কাউন্সিলর হওয়ার যোগ্য নই।’
গতকাল বিসিবির নির্বাচনের অস্থায়ী কার্যালয় মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামের নোটিশ বোর্ড ছাড়াও জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের (এনএসসি) ও যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের ওয়েব সাইটে নির্বাচনের খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হয়। প্রধান নির্বাচন কমিশনার মো. ওমর ফারুক তালিকা প্রকাশের পর অনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ‘নির্বাচনী তফসিল মোতাবেক খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। ১৬৭ জন কাউন্সিলরের তালিকা পেয়েছি ক্রিকেট বোর্ড থেকে। আমরা সেটাকে খসড়া হিসেবে ঘোষণা করেছি।’
কমে গেল পাঁচজন কাউন্সিলর
১৫ই অক্টোবরের মধ্যে কাউন্সিলর চেয়ে বিভাগ, জেলা ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কাছে চিঠি দিয়েছে বিসিবি। রোববার সেই সময়সীমা শেষ হওয়ার পর বিসিবির হাতে জমা পড়ে ১৬৭ জন কাউন্সিলরের নাম। এর আগে ২০১৩ নির্বাচনে ছিল ১৭২ জন কাউন্সিলর। সেই হিসেবে এবার ৫ জন কাউন্সিলরের নাম পায়নি বিসিবি। কেন ও কারা কাউন্সিলর হয়নি এ বিষয়ে বিসিবির সিইও ও নির্বাচন কমিশনের সদস্য নিজামুদ্দিন চৌধুরী সুজন বলেন, ‘আমরা নির্ধারিত তারিখ পর্যন্ত ১৬৭ জনের ফর্ম পেয়েছি। যে পাঁচটি সংস্থা কাউন্সিলরের নাম পাঠায়নি তারা- বান্দরবন জেলা স্পোর্টস অ্যাসোসিয়েশন, বাগেরহাট জেলা স্পোর্টস অ্যাসোসিয়েশন, কুড়িগ্রাম জেলা স্পোর্টস অ্যাসোসিয়েশন, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স লিমিটেড এবং মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, ঢাকা। কিন্তু কেন তারা নাম পাঠাননি সেটি জানি না। তবে তারা যে আমাদের পাঠানো চিঠি পেয়েছেন সেটা আমাদের প্রমাণ আছে।’ এছাড়াও এই নির্বাচনে তো নয়ই আগামী চার বছরও কাউন্সিলর হতে পারবে না বলে আভাস মিলেছে। সুজন বলেন, ‘তারা কাউন্সিলর দেয়নি কেন তা নিয়ে বিসিবি কোনো ব্যবস্থা নিবে কিনা বা তাদের পরে কাউন্সিলর করা হবে কিনা সেটি বোর্ডের বিষয়। বোর্ড মিটিং ছাড়া সম্ভব নয়।’ তবে বিসিবির প্রধান নির্বাচন কমিশনার স্পষ্ট করেই জানিয়ে দিয়েছেন তারা নির্বাচনের আগে চাইলেও আর কাউন্সিলর হতে পারবে না। ওমর ফারুক বলেন, ‘এখন আর তাদের কাউন্সিলর হওয়ার সুযোগ নেই। কাল (আজ আপত্তি ও শুনানি শেষে কেউ বাদ যেতে পারেন কিন্তু নতুন করে কেউ আসতে পারবে না।’
সাবেক ক্রিকেটার যারা কাউন্সিলর
আগামী ৩১শে অক্টোবর বাংলাদেশ বিসিবি পরিচালনা পর্ষদের নির্বাচন। বিসিবির ২০১৭ সালের সংশোধিত গঠনতন্ত্র অনুসারে ১০ জন জাতীয় দল ও প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটার, ৫ জন সাবেক অধিনায়ককে কাউন্সিলর মনোনীত করেছে বিসিবি। জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়কদের মধ্যে মনোনয়ন পেয়েছেন রকিবুল হাসান, গাজী আশরাফ হোসেন লিপু, ফারুক আহমেদ, মিনহাজুল আবেদিন নান্নু ও খালেদ মাসুদ পাইলট। মনোনয়ন পাওয়া জাতীয় দল ও প্রথম শ্রেণির ১০ ক্রিকেটার হলেন আজম ইকবাল, এএস এম ফারুক, উমর খালিদ রুমী, সেলিম শাহেদ, খালেদ মাহমুদ সুজন, ফয়সাল হোসেন ডিকেন্স, একে এম আহসান উল্লাহ, নিয়ামুর রশীদ রাহুল, হান্নান সরকার ও শাহেদুর রহমান। বর্তমান বোর্ড পরিচালক আকরাম খান কাউন্সিলর হয়েছেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা থেকে। আর মানিকগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থা থেকে নাঈমুর রহমান দুর্জয়। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কাউন্সিলর মনোনীত হয়েছেন সাবেক ক্রিকেটার দেবব্রত পাল। তিনি ক্রিকেটার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (কোয়াব) সাধারণ সম্পাদক। কোয়াব থেকে এবার কাউন্সিলর হয়েছেন গোলাম মোহাম্মদ ফয়সাল।
বর্তমান কমিটির মেয়াদ আজ শেষ
২০১৩ সালের ১০ই অক্টোবর বিসিবির বর্তমান কমিটি নির্বাচিত হয়েছিল। এরপর ১৭ অক্টোবর তারা প্রথম বোর্ড সভায় অংশ নেন। যে কারণে গঠনতন্ত্র অনুসারে নাজমুল হাসান পাপনের কার্যকরী পরিষদের আজ মেয়াদের শেষ দিন। তবে ২০১৭ সালের সংশোধিত গঠনতন্ত্র মোতাবেক এ কমিটির অধীনেই নির্বাচন পরিচালিত হবে। বর্তমান কমিটি নির্বাচনের পর ১৫ কার্য দিবসের মধ্যে নতুন নির্বাচিত কমিটির হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করবেন। তবে এ সময় মেয়াদ উত্তীর্ণ কমিটি বিসিবির কোনো নীতিনির্ধারণী সিদ্ধান্ত নিতে পারবে না। যদি না কোনো বিশেষ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।