খান আতা ইস্যুতে এফডিসিতে চলচ্চিত্র পরিবারের সংবাদ সম্মেলন

30

নিউইয়র্কে সাংস্কৃতিক অভিবাসীদের সমাবেশে সম্প্রতি সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব-মুক্তিযোদ্ধা নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু প্রয়াত বরেণ্য নির্মাতা, সুরকার, সংগীত পরিচালক, প্রযোজক ও অভিনেতা খান আতাউর রহমানকে ‘রাজাকার’ বলে মন্তব্য করেন। খান আতার নির্মিত ‘আবার তোরা মানুষ হ’ ছবিটিকে তিনি নেগেটিভ ছবি হিসাবেও আখ্যায়িত করেন। খান আতাকে ‘রাজাকার’ বলার কারণে নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চুকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে ব্যাপক সমালোচনার ঝড় বইছে গত কয়েকদিন ধরেই। সেই ইস্যুতে উত্তাল বিএফডিসিও। সাম্প্রতিক এই বির্তকের জেরে সংবাদ সম্মেলন ডেকেছে চলচ্চিত্রের বৃহত্তর সংগঠন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিবার। ১৯শে অক্টোবর (আজ) সকাল সাড়ে ১১টায় বিএফডিসির জহির রায়হান ভিআইপি প্রজেকশন হলে এটি অনুষ্ঠিত হয়।

আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনে অংশ নেন চিত্রনায়ক ও মুক্তিযোদ্ধা ফারুক, নির্মাতা আমজাদ হোসেন, সিবি জামান, আজিজুর রহমান, মুশফিকুর রহমান গুলজার, খান আতার মেয়ে সংগীতশিল্পী রোমানা ইসলাম, ছেলে সংগীতশিল্পী-অভিনেতা আগুনসহ আরও অনেকে। সংবাদ সম্মেলনে মহান মুক্তিযুদ্ধ ও পরবর্তী সময়ের কিছু তথ্য তুলে ধরেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিবারের আহ্বায়ক চিত্রনায়ক ফারুক। তিনি বলেন, খান আতা পরিচালিত ‘আবার তোরা মানুষ হ’ ছবিটি মুক্তি পায় ১৯৭৩ সালে। তখন বঙ্গবন্ধুর সরকার ক্ষমতায় ছিল। ছবিটি নিয়ে তখনই বিতর্ক তৈরি হয়েছিল। পরে মুক্তিযোদ্ধা মোফাজ্জ্বল হোসেন মায়া (বর্তমান ত্রাণ ও ব্যবস্থাপনা মন্ত্রী) ছবিটি রিভিউ করে এটি চালানোর অনুমতি দেন। মুক্তিযুদ্ধের সরকারই ছবিটি নিয়ে যখন আপত্তি করেনি তখন আপনি (নাসির উদ্দিন ইউসুফ) কেন খান আতার বিরুদ্ধে কথা বলছেন। তার মানে আপনি স্বাধীনতার বিরুদ্ধে কথা বলছেন। পরিচালক আজিজুর রহমান বলেন, খান আতা মুক্তিযুদ্ধের সময় ঝুঁকি নিয়েও বাংলা চলচ্চিত্রের জন্য কাজ করেছেন। পাকিস্তানিদের হুমকি মাথায় নিয়েও যিনি কাজ করেছেন তিনি মুক্তিযোদ্ধা না রাজাকার? খান আতা ছিলেন, আছেন, থাকবেন। পরিচালক সিবি জামান বলেন, খান আতার মতো মানুষকে নিয়ে যারা এমন মন্তব্য করতে পারে তাদেরকে ঘৃণা করি। এ অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে রোমানা ইসলাম এবং আগুনও বক্তব্য রাখেন। সবশেষে, খানা আতার ‘আবার তোরা মানুষ হ’ ছবিটি প্রদর্শিত হয়।