গুজরাটে বন্যায় নিহত ১২০

26

ভারতের পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য গুজরাটে ১২০ জনের অধিক মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন। অচল হয়ে গেছে রাজ্যটির বেশির ভাগ অবকাঠামো। ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে রাজ্যজুড়ে তুলাচাষিরা। সরকারি কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। ভারতের জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের এক কর্মকর্তা দীপক ঘাই রয়টার্সকে বলেছেন, ‘ভারতের পশ্চিম ও পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোয় বর্ষাকালের ভারী বর্ষণ ও বন্যায় সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে অন্তত ৩০০ মানুষ নিহত হয়েছেন।’ দীপক ঘাই বলেন, ‘আমাদের টিম ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলে সেনাদের সঙ্গে নিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়ার চেষ্টা করছেন।’ এবারের বন্যায় ১০ লাখেরও বেশি পরিবার আক্রান্ত হয়েছে। চাষ উপযোগী জমির ক্ষতির পরিমাণ মূল্যায়নের কাজ চলছে এখনো।জেলা প্রশাসক এ আর রাভাল বলেন, ‘বন্যায় আংশিকভাবে আক্রান্ত হয়েছে গুজরাটের প্রধান ব্যবসায়িক এলাকা, আহমেদাবাদ বিমানবন্দরও। গন্তব্যস্থল পরিবর্তন করতে হয়েছে অনেক ফ্লাইটের। বন্ধ করে দিতে হয়েছে ১৫০টিরও বেশি কারখানা।’ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জন্মস্থান গুজরাটে এবারের বন্যা তুলাচাষিদের জন্য খুবই খারাপ পরিস্থিতি নিয়ে এসেছে। রাভাল বলেন, ‘৫০ হাজারেরও বেশি মানুষ তাদের বাড়ি ও জমি থেকে পানি সরাতে যুদ্ধ করছেন।’ গুজরাট ও রাজস্থানে তুলা ও ভুট্টা ব্যাপক আকারে আক্রান্ত হয়েছে কয়েক দিনের বর্ষণে। খামার বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা করছেন, এ বর্ষণে কীটপতঙ্গের উপদ্রব বেড়ে যাবে।