চুরির অভিযোগে দুই শিশুকে গাছে বেঁধে নির্যাতন

44

খুলনার পাইকগাছায় পল্লীতে হাঁস চুরির অভিযোগে দুই শিশুকে গাছে বেঁধে নির্মম নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার শাহিনুর রহমান জুম্মন সরদার ও হাসান নামে এ দুই শিশুকে কয়েক ঘণ্টা গাছে বেঁধে নির্যাতন করা হয়। ঘটনাটি ফেসবুকে প্রকাশ পেলে খুলনা জুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। অভিযোগে জানা গেছে, মানিকতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র জুম্মন সরদার, মঠবাটী মাদরাসার পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র হাসান এবং তাদের সহপাঠী জাহিদুল শুক্রবার দুপুরের দিকে স্থানীয় বোয়ালিয়া বীজ উৎপাদন খামারের ভিতর থেকে একটি হাঁস মেরে ও আরও ৩টি হাঁস ধরে নিয়ে যায়।
এ ঘটনায় হাঁসের মালিক স্থানীয় ব্যবসায়ী ছবেদ আলীর ছেলে শাহিনুর রহমান দুই জনকে ধরে এনে তার বসতবাড়ির আম গাছের সঙ্গে বেঁধে মারপিট করে। জুম্মনের মা পারভীন বেগম এ ঘটনাটি লোকমুখে জানতে পেরে এলাকার লোকজনকে জানান। কয়েক ঘণ্টা বেঁধে রাখার পর সন্ধ্যায় স্থানীয় লোকজন হাঁসের মালিকের বাড়িতে জড়ো হলে দুজনকেই তাদের অভিভাবকের কাছে ছেড়ে দেয়।
ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে শাহিনুর রহমান বলেন, ‘আমি রাগের বশে দুই জনকে কিছু সময়ের জন্য গাছের সাথে বেঁধে রাখি। পরে ভুল বুঝতে পেরে তাদের ছেড়ে দেই।
এ ব্যাপারে পাইকগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আমিনুল ইসলাম বিপ্লব গতকাল শনিবার জানান, এ ধরনের কোন অভিযোগ নিয়ে থানায় কেউ আসেনি। আসলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।