ছুটিতে লন্ডন গেলেন অ্যান্ড্রু অর্ড

29

এএফসি অনূর্ধ্ব-২৩ চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাই পর্ব শেষে মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকায় ফিরেছেন ফুটবলাররা। তবে দলের সঙ্গে ফেরেননি অস্ট্রেলিয়ান কোচ অ্যান্ডু্র অর্ড। ফিলিস্তিন থেকে জর্ডান হয়ে দুবাই পর্যন্ত এক সঙ্গেই ছিলেন সবাই। দুবাই এয়ারপোর্ট থেকে গন্তব্য আলাদা হয়ে যায় কোচ আর ফুটবলারদের। ফুটবলাররা ধরেন ঢাকার ফ্লাইট, কোচ ধরেন লন্ডনের।
অনূর্ধ্ব-২৩ দলের ম্যানেজার সত্যজিৎ দাস রূপু জানান, ‘কোচ ছুটি নিয়েই লন্ডন গেছে। ফিলিস্তিনের উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগের আগে এভাবে তিনি শিডিউল করেছেন। যেহেতু ২৮শে জুলাই লীগ শুরু হচ্ছে। তাই তিনি কয়েকদিন ছুটি কাটিয়ে আসবেন। আগমী ১০ই আগস্টের মধ্যে লন্ডন থেকে ঢাকায় ফেরার কথা।’ এর আগে ঈদের ছুটির সময় তিনদিনের জন্য থাইল্যান্ড গিয়েছিলেন অর্ড। কোচের ছুটির প্রসঙ্গে বাফুফে সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ জানান, ন্যাশনাল টিমস কমিটির চেয়ারম্যান ও বাফুফে সহ-সভাপতি কাজী নাবিল আহাম্মেদের সঙ্গে আলোচনা করেই ছুটিতে গেছেন অর্ড। ফিরবেন ৮ই আগস্ট। ঢাকায় ফিরেই অনূর্ধ্ব-১৮ দলের দায়িত্ব নিবেন এই অস্ট্রেলিয়ান। আগামী ১৮ই সেপ্টেম্বর ভুটানে অনুুষ্ঠিত হবে এই আসর। বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশিয়ার ছয়টি দেশ অংশ নিবে এই আসরে।
এদিকে দায়িত্ব নেয়ার পর ফিলিস্তিন থেকে একেবারে শূন্য হাতেই ফিরেছেন অ্যান্ডু্র অর্ড। তিন ম্যাচে অংশ নিয়ে তিনটিতেই হেরেছে বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচে জর্ডানের কাছে ৭-০, দ্বিতীয় ম্যাচে তাজিকিস্তানের কাছে ৩-১ এবং শেষ ম্যাচে স্বাগতিক ফিলিস্তিনের কাছে ৩-০ গোলে হেরেছে অর্ডের শিষ্যরা। জর্ডানের কাছে প্রথম ম্যাচে ৭-০ গোলে উড়ে যাওয়া অর্ডের চোখে, ‘মানসিক হার।’ দ্বিতীয় ম্যাচে তাজিকিস্তানের কাছে ৩-১ গোলে হারলেও বাংলাদেশ একশ’ ভাগ দিয়েছে বলে মনে করেন কোচ। তবে এটিকে যথেষ্ট বলতে পারছেন না, ‘শারীরিক ও মানসিকভাবে পুরোপুরি তৈরি না থাকায় ওই একশ’ ভাগও আমাদের জন্য পর্যাপ্ত ছিল না।’ ফিলিস্তিনের কাছে ৩-০ গোলে হারেও উন্নতি দেখছেন অর্ড। তবে এই ম্যাচে দুটি সেট পিস গোল খেয়েছে তার দল, যে সেট পিস নিয়ে অনুশীলনে অনেক কাজ করেও শেষ রক্ষা না হওয়ার আক্ষেপ ঝরেছে তার কণ্ঠে।