ঝিনাইগাতীতে পাহাড়ি ঢলে উপজেলা সদরসহ ৩ ইউনিয়নের ৩০টি গ্রাম প্লাবিত

35

শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলায় পাহাড়ি ঢলে উপজেলা সদরসহ ৩টি ইউনিয়নের অন্তত ৩০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। আজ শনিবার ভোরে ভারতের উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে রামেরকুড়া এলাকায় মহারশি নদীর বাঁধ ভেঙ্গে গ্রামগুলো প্লাবিত হয়। এ ব্যাপারে ঝিনাইগাতী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফারহানা করিম জানান, ‘পাহাড়ি ঢলে বাঁধ ভেঙ্গে ঝিনাইগাতী সদর ইউনিয়ন, ধানশাইল ও মালিঝিকান্দা এ ৩টি ইউনিয়ন প্লাবিত হয়েছে। আমি পরিস্থিতি পরিদর্শনে বেড়িয়েছি। এখনও পুরোটা বিষদভাবে বলা সম্ভব হচ্ছে না।’
এদিকে স্থানীয়রা জানিয়েছে, সকালের দিকে হঠাৎ করে উপজেলা শহরে পানি প্রবেশ করে। বিশেষ করে ঝিনাইগাতী উপজেলার কর্মকর্তার কার্যালয়সহ পুরো বাজার এলাকা হাটু পানির নিচে তলিয়ে যায়।
স্থানীয়রা আরো জানান, পাহাড়ি ঢলের পানিতে মৎস্যচাষীদের বেশি ক্ষতি হয়েছে। বিভিন্ন পুকুরের মাছ আকস্মিক এই ঢলে ভেসে গেছে। তারা জানান, বেশি ক্ষতিগ্রস্ত গ্রামগুলো মধ্যে রযেছে রামেরকুড়া, দিঘীরপাড়, দিঘীরপাড়চতল, বনগাও, মাটিয়াপাড়া, কালীনগর, সারিকালীনগর, দড়িকালীনগর, সুরিহারা, দাড়িয়াপাড়, পাগলারমুখ, হাতিবান্ধা, স্লুইসগেইট ও বনগাও চতল প্রভৃতি। এদিকে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ঝিনাইগাতী উপজেলা সদর ও অপেক্ষাকৃত উঁচু এলাকাগুলো থেকে ঢলের পানি নামতে শুরু করেছে।