তিন দেশের ওপর ট্রাম্পের নতুন ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা

27

উত্তর কোরিয়া, ভেনেজুয়েলা ও চাঁদের নাগরিকদের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। রোববার প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এ বিষয়ে একটি ঘোষণা দেন। এ নিয়ে মোট আটটি দেশের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর রয়েছে। ট্রাম্পের ঘোষণা অনুসারে, সুদানের নাগরিকদের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হয়েছে। এ খবর দিয়েছে বিবিসি। হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, বিদেশি সরকারদের দেয়া তথ্য পর্যালোচনা করে এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে ট্রাম্প টুইটারে বলেছেন, ‘আমেরিকাকে নিরাপদ করা আমার প্রথম অগ্রাধিকার। যাদের অতীত রেকর্ড আমরা নিরাপদে যাচাই-বাছাই করতে পারবো না, তাদেরকে আমাদের দেশে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না।’ তবে পূর্বে আরোপিত নিষেধাজ্ঞার মতো এ নিষেধাজ্ঞার কোনো সময়সীমা নেই। অনির্দিষ্টকাল কার্যকর থাকবে এটি। ভেনেজুয়েলার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা শুধু দেশটির সরকারি কর্মকর্তা ও তাদের পরিবারের সদস্যদের ওপর প্রযোজ্য হবে। আর ইরাকি নাগরিকরা ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার অন্তর্ভুক্ত না হলেও তাদেরকে ব্যাপক তল্লাশির মুখোমুখি হতে হবে। এদিকে, সুদানের ওপর থেকে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হলেও ইরান, লিবিয়া, সিরিয়া, ইয়েমেন ও সোমালিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা কার্যকর রয়েছে। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের প্রথম ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা মুসলিম-
সংখ্যাগরিষ্ঠ ছয়টি দেশের ওপর আরোপ করার কারণে ব্যাপকভাবে সমালোচিত হয়েছে। অনেকে নিষেধাজ্ঞাটিকে ‘মুসলিম নিষেধাজ্ঞা’ বলেও আখ্যা দিয়েছেন। মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল যুক্তরাষ্ট্রের এ নিষেধাজ্ঞার নিন্দা জানিয়েছে। এক বিবৃতিতে সংস্থাটি জানিয়েছে, গোটা জাতিকে নিষেধাজ্ঞা দেয়া বোকামি ও কঠোর সিদ্ধান্ত। এদিকে, যুক্তরাষ্ট্রের একজন প্রশাসনিক কর্মকর্তা স্বীকার করেছেন যে, বর্তমানে উত্তর কোরিয়ার খুব কম সংখ্যক নাগরিক যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণ করেন। হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, আগন্তুকদের পরীক্ষণ ও ভিসা প্রদানের জন্য প্রয়োজনীয় শর্ত পূরণ করতে না পারার কারণে এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট দেশগুলোকে জুলাই মাসে জানানো হয়েছিল। অবস্থার উন্নতির জন্য তাদেরকে ৫০ দিন সময় দেয়া হয়েছিল। কয়েকটি দেশ তাদের ভ্রমণের জন্য প্রয়োজনীয় নথিপত্রগুলো ও চুরি যাওয়া বা হারিয়ে যাওয়া পাসপোর্ট নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে। কিন্তু অন্যান্য দেশগুলো তা না করায় তাদের ওপর এ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। উল্লেখ্য, পূর্বে ৬টি দেশের ওপর জারি করা ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার ব্যাপারে মৌখিক যুক্তিতর্কের শুনানি অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১০ই অক্টোবর। ওই শুনানির মূল বিষয় হচ্ছে, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ওই নিষেধাজ্ঞার মাধ্যমে মুসলিমরা বৈষম্যের শিকার হয়েছে কিনা তা যাচাই করা।

 

 

 

সূত্র : মানবজমিন অনলাইন পত্রিকা