তিন যুগে ভিন দেশে প্রথম এল ক্ল্যাসিকো যুক্তরাষ্ট্রে উত্তেজনা তুঙ্গে

28

এল ক্লাসিকোর প্রবল উত্তেজনা বিরাজ করছে এখন যুক্তরাষ্ট্রে। ক্লাব ফুটবলে সবচেয়ে আকর্ষণীয় বার্সেলোনা-রিয়াল মাদ্রিদের লড়াই আগামীকাল। ইন্টারন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন্স কাপে মুখোমুখি হবে স্পেনের ক্লাব দু’টি। ৩৫ বছর পর স্পেনের বাইরে কোনো দেশে মুখোমুখি হচ্ছে তারা। দেশের বাইরে সর্বশেষ তারা মুখোমুখি হয় ১৯৮২ সালে ভেনিজুয়েলায়। এরপর সাড়ে তিন দশক পেরিয়ে গেলেও দেশের বাইরে তাদের দেখা হয়নি। রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনার লড়াই মাঠে বসে দেখার জন্য উদগ্রিব হয়ে আছে যুক্তরাষ্ট্রের ফুটবলপ্রেমীরা। ফ্লোরিডার মিয়ামি ডলফিন স্টেডিয়ামের ম্যাচটির টিকিট অনেক আগেই শেষ। ৬৫,৩২৬ আসনের স্টেডিয়াম দর্শক থাকবে কানায় কানায় পূর্ণ। কালোবাজারের টিকিট বিক্রি হয়েছে আকাশ ছোঁয়া দামে। প্রতিটি টিকিট ৭০০ ডলার পর্যন্ত বিক্রি হয়েছে। বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৬০ হাজার টাকা। আগামী মৌসুমে স্প্যানিশ লা-লিগায় মাঠে নামার আগে দুইবার মুখোমুখি হবে বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদ। আগস্টে স্প্যানিশ সুপার কাপে মুখোমুখি হবে তারা।
গত মৌসুমে লা-লিগার চ্যাম্পিয়ন হিসেবে রিয়াল মাদ্রিদ আর কোপা দেল রে’র চ্যাম্পিয়ন হিসেবে বার্সেলোনা এই শিরোপার লড়াইয়ে নামবে। তবে তার আগে আগামীকাল বাংলাদেশ সময় ভোর ৬ টায় তারা মুখোমুখি হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রে ইন্টারন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন্স কাপে। প্রাক মৌসুমে এ টুর্নামেন্টে দুই দলের অবস্থা সম্পূর্ণ ভিন্ন। রিয়াল মাদ্রিদ আগের দুই ম্যাচই হেরেছে। ম্যানচেস্টার ইউনাটেডের কাছে টাইব্রেকারে ২-১ গোলে হারের পর ম্যানচেস্টার সিটির কাছে বিধ্বস্ত হয় ৪-১ গোলে। অন্যদিকে উড়ছে বার্সেলোনা। ইতালির ক্লাব জুভেন্টাসকে ২-১ গোলে হারানোর পর ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে হারায় ১-০ গোলে। দুই ম্যাচে বার্সেলোনার তিন গোলই আসে নেইমারের পা থেকে, যার চলতি দল বদলের মৌসুমে বার্সেলোনা ছেড়ে ফরাসি ক্লাব প্যারিস সেইন্ট জার্মেই’তে (পিএসজি) যোগ দেয়ার গুঞ্জন চলছে।
আগের ম্যাচগুলোতে বার্সেলোনার হয়ে খেলেছেন তাদের তারকা সব খেলোয়াড়। কিন্তু রিয়াল মাদ্রিদ তাদের সেরা খেলোয়াড় ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে পায়নি। ছুটিতে থাকায় আগের ম্যাচগুলো খেলেননি তিনি। আগামীকালের এল ক্লাসিকোতে তার খেলার সম্ভাবনা নিয়েও ধোয়াশা। বৃহস্পতিবার তার দলের সঙ্গে যোগ দেয়ার কথা ছিল। কিন্তু গতকাল পর্যন্ত তাকে দেখা যায়নি। যদিও লিওনেল মেসি বার্সেলোনার সতীর্থদের সঙ্গে মিয়ামিতে অনুশীলন করেছেন। রোনালদো যদি আগামীকাল না খেলেন তাহলে এল ক্লাসিকো রঙ হারাবে তাতে কোনো সন্দেহ নেই। মূলত, মেসি-রোনালদোর দ্বৈরথ দেখার জন্যই মুখিয়ে আছেন দর্শকরা।