দ্বন্দ্বের অবসান

41

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির সঙ্গে চলচ্চিত্র পরিবারের সদস্যদের দ্বন্দ্বের অবসান হলো। শনিবার রাতে সংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদের আমন্ত্রণে তার ধানমন্ডির বাসভবনে চলচ্চিত্র পরিবারের সদস্য ও চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির নেতৃবৃন্দ এক বৈঠকে বসেছিলেন। সেখানে উপস্থিত ছিলেন চলচ্চিত্র পরিবারের আহ্বায়ক অভিনেতা ফারুক, সদস্য সচিব বদিউল আলম খোকন, শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর, সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান, সহসভাপতি রিয়াজ, প্রযোজক খোরশেদ আলম খসরু, সংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ, চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির সভাপতি ইফতেখার উদ্দিন নওশাদ, সমিতির উপদেষ্টা সুদীপ্ত দাস ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক মিয়া আলাউদ্দীন। এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে সেন্সর বোর্ডের সদস্য ও চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির সভাপতি ইফতেখার উদ্দিন নওশাদ মানবজমিনকে বলেন, মূলত কাজী ফিরোজ রশীদের আমন্ত্রণে তার ধানমন্ডির বাসভবনে যাই। সেখানে যাওয়ার পর সকলের সঙ্গে দেখা হয় আমার। কিছুদিন আগে সেন্সর বোর্ডের সামনে আমার ওপর হামলার পর বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতি ও বুকিং
এজেন্টের সঙ্গে বসে বার্ষিক সভায় আমরা প্রযোজক খোরশেদ আলম খসরু, পরিচালক বদিউল আলম খোকন, চলচ্চিত্রের অভিনেতা মিশা সওদাগর ও রিয়াজের ছবি সিনেমা হলে না চালানোর সিদ্ধান্ত নিই। কারণ তারাই আমাকে সেন্সর বোর্ডের সামনে লাঞ্ছিত করেন। তবে গত শনিবার রাতে আমার ওপর হামলার ঘটনায় তারা দুঃখ প্রকাশ করেছেন। আর চলচ্চিত্রের স্বার্থে দ্বন্দ্বের অবসান চেয়েছেন। চলচ্চিত্রের সিনিয়র অভিনেতা ফারুক ভাইও ছিলেন। তাই আমি নিজেদের মধ্যে বিরোধ রাখতে চাই না। চলচ্চিত্রের উন্নয়নের স্বার্থে দ্বন্দ্বের অবসান আমিও চাই। সবাই মিলেমিশে চলচ্চিত্রের উন্নয়নে কাজ করতে চাই। আর সিনেমা হলে তাদের ছবি না চালানোর সিদ্ধান্তের কথা জানতে চাইলে তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির সামনের সভায় আমরা সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এর ঘোষণা দেব। তবে আমরা সব ভুলে মিলেমিশে চলচ্চিত্রের উন্নয়নে কাজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। প্রসঙ্গত, গত ২১শে জুন চলচ্চিত্র পরিবারের আন্দোলনে সেন্সর বোর্ডের সামনে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির সভাপতি ও সেন্সর বোর্ডের সদস্য ইফতেখার উদ্দিন নওশাদ হামলার শিকার হন।