নকলায় মোটরসাইকেল, সাইকেল চুরি বেড়েছে, কার্যকর ব্যবস্থা প্রয়োজন

59

মোঃ আব্দুল মোত্তালেব সেলিম, নকলা ঃ

শেরপুরের নকলা উপজেলা মোটর সাইকেল ও বাইসাইকেল চুরি আশংকাজনক ভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। সাম্প্রতিক সময়ে বেশ কিছু মোটর ও বাইসাইকেল চুরির ঘটনা ঘটলেও এসব উদ্ধারে এবং চুরি প্রতিরোধে তেমন কার্যকর ব্যবস্থা পরিলক্ষিত হয়নি।
কদিন আগে উপজেলার আদমপুর এলাকা থেকে মোবাইল অপারেটর রবি শেরপুরে চাকরীরত সেলস রিপ্রেজেন্টিটিভ আমজাদ হোসেনর একটি ১’শ সিসির বাজাজ মোটরসাইকেল চুরি হয়। চুরি এবং চোর বিষয়ে বিস্তারিত জানা সত্বেও মোটরসাইকেলটি আজ পর্যন্ত উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। শ্রুতি আছে বারইকান্দি এলাকার এক চিহ্নিত সিএনজি অটোরিক্সা চোর এই চুরির সাথে জড়িত। এ ব্যাপারে পুলিশ অবশ্য বলেছে, তারা মোটরসাইকেল উদ্ধারে চেষ্টা করে যাচ্ছে।
রবি’র শেরপুরে কর্মরত কর্মকর্তা ও অন্যান্যরা এবং ভুক্তভোগি আমজাদ হোসেন এ ব্যাপারে হতাশা ব্যক্ত করেছেন।
এছাড়াও জালালপুর এলাকার মিল মালিক বুলবুলের ১৩৫ সিসি একটি ডিসকভার মোটর সাইকেল, তুলার দোকান সাইয়েদুলের একটি মোটর সাইকেল, সোনালী ব্যাংকের রহুলের একটি মোটর সাইকেল, উপজেলা পরিষদ সমবায় অফিসের সামনে থেকে কলেজ শিক্ষক মোবারকের একটি ডিসকভার মোটর সাইকেল চুরি হয়েছে। তারা প্রত্যেকেই নকলা থানা অভিযোগ করেছেন বলে জানান এ প্রতিনিধিকে। এ ছাড়াও হলমোড়, হাসপাতাল মোড়সহ নানা গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট থেকে হরহামেশা এরকম চুরি হয়ে থাকে। হাকিম মার্কেট থেকে মাদ্রাসা ছাত্র আসিফের ১টি বাইসাইকেল, শাহিন মেডিকেল থেকে ৩টি বাইসাইকেলসহ এ উপজেলার নানা জায়গা থেকে নতুন নতুন বাইসাইকেল চুরি হয়ে থাকে। এসব বন্ধে কোন কার্যকর ব্যবসস্থা পরিলক্ষিত হয়নি এবং চুরি করা সাইকেল বা মোটরসাইকেলও উদ্ধার করা যায়নি।