‘নাম রোনালদো বলেই আজ আমি আদালতে’

32

তার বিরুদ্ধে কর ফাঁকির মামলা হওয়ার পরপরই ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখান ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। এমন অভিযোগকে সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন বলে দাবি করেন। তিনি কখনো কর ফাঁকি দেননি বলে জানান। তিনি কাউকে ফাঁক দেয়ার মতো মানুষ নন বলেও দাবি করেন। জুনে স্পেনের আদালতে তার বিরুদ্ধে কর ফাঁকির মামলা হওয়ার পর এমন কথা বলেছিলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। সেই মামলার শুনানিতে হাজির হয়েও দৃঢ়তা দেখালেন রোনালদো। বিচারকের সামনে নিজেই দৃঢ়চিত্তে কথা বললেন পর্তুগিজ এ উইঙ্গার। নিজেকে নির্দোষ দাবি করলেন। তার বদনাম ছড়ানোর জন্যই এই মামলা করা হয়েছে বলে দাবি করলেন তিনি। তার নাম ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো না হলে এখন আদালতে আসতে হতো না বলে মন্তব্য করেন তিনি। আদালদে বিচারকের সামনে কথা বলার জন্য রোনালদোকে একজন দোভাষী দেয়া হয়। কিন্তু তিনি তাকে সরিয়ে রেখে নিজেই কথা বলেন। নিজেকে নির্দোষ দাবি করে স্প্যানিশ আদালতে দৃপ্ত কণ্ঠে রোনালদো বলেন, ‘আমার আয়ের ব্যাপারে স্পেনের ট্রেজারি ভালমতোই জানে। আমি সবসময় নিজের এসব ব্যাপারে পরিষ্কার হিসাব দিয়েছি। যতটুক কর দিতে হয় তার একটুও কম কোনোদিন দেইনি। যারা আমাকে চেনেন তারা এটা জানবেন। আমি কোনো ধরনের ঝামেলা পছন্দ করি না।’ তার বদনাম করতেই এই অভিযোগ আনা হয়েছে বলে মনে করেন সিআর সেভেন, ‘মাদ্রিদে আসার পর নিজের ইমেজ নিয়ে খুব একটা মাথা ঘামাইনি। ইংল্যান্ডে থাকতেও মাথা ঘামাতাম না। আমি যদি ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো না হতাম তাহলে আজ হয়তো এখানে বসে থাকতে হতো না।’ বিচারক গোমেজ ফেরার অবশ্য সাথে সাথেই রোনালদোর এই কথার জবাব দেন, ‘আপনি ভুল বুঝছেন। অনেক সন্দেহজনক ব্যক্তিরাই এখানে বসেছে। আপনার বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে। এজন্যই এখানে এসেছেন।’ রোনালদো অবশ্য নিজের কথায় অটল থেকেছেন শেষ পর্যন্ত। তিনি বিচারকের সামনে বুক ফুলিয়ে বলেন ‘মোটেও না। এসব হচ্ছে, কারণ আমি ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো।’ রোনালদোর বিরুদ্ধে ১৪.৭ মিলিয়ন পাউন্ড কর ফাঁকির অভিযোগ। এই অভিযোগ প্রমাণিত হলে তার সাত বছরের জেল হতে পারে।

Advertisement
Print Friendly, PDF & Email
sadi