নালিতাবাড়ীতে দরিদ্র শ্রমিকের মজুরীর টাকা আত্মসাৎ করেছে ইউপি সদস্য

116

মঞ্জুরুল আহসান : শেরপুর জেলার নালিতাবাড়ী উপজেলার যোগানিয়া ইউনিয়নের গোবিন্দনগর গ্রামের ইউপি সদস্য আমানুল্লাহ অতি দরিদ্রদের জন্য কর্মসূচি (ইজিপিপি) এর শ্রমিকদের মজুরীর টাকা আত্মসাৎ করেছে বলে অভিযোগ করেছেন অসহায় শ্রমিকেরা।

জানা গেছে, নালিতাবাড়ী উপজেলার যোগানিয়া ইউনিয়নে ২০২০-২০২১ অর্থ বছরে গোবিন্দনগর ইউপি সদস্য আমানুল্লাহ বাড়ি হতে সাখাওয়াতের বাঁধ পর্যন্ত রাস্তা মেরামত বাবদ ৩০ হাজার ঘনফুট মাটি বরাদ্দ হয় অতি দরিদ্রদের জন্য কর্মসূচি (ইজিপিপি) প্রকল্পের মাধ্যমে। প্রকল্পটির সভাপতি ইউপি সদস্য আমানুল্লাহ। এই প্রকল্পে ২৫ জন দরিদ্র শ্রমিক দৈনিক ২০০ টাকা মজুরীতে ৪০দিন কাজ করেন। এই প্রকল্পে তালিকার বাহিরে কোনো শ্রমিকের কাজ করার সুযোগ নেই। এতে প্রতিজনের মজুরী হয় মোট ৮ হাজার টাকা করে। দরিদ্রদের এই মজুরী ১৪ জুলাই বুধবার ব্যাংক থেকে উত্তোলন করে যোগানিয়া ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আমীর হোসেন। পরে ওই শ্রমিকদের মজুরীর টাকা ইউপি সদস্য আমানুল্লাহর হাতে প্রদান করেন। আমানুল্লাহ ওই টাকা দরিদ্র শ্রমিকদের ডেকে আড়ালে নিয়ে প্রতিজনকে ৭ হাজার ৪০০ করে প্রদান করেন। এদিকে প্রত্যেক শ্রমিকের বাকী ৬০০ করে টাকা নিজ পকেটস্থ করে আত্মসাৎ করেছেন বলে তারা অভিযোগ করেন।

দরিদ্র শ্রমিক আরফুজ আলী (৬০), সালেহা খাতুন (৩২), মুর্শিদা বেগম (৪৩), জমিলা খাতুন, মমতাজ বেগম (৩০), রছমেত আলী (৫৫), আবু সালিম জানান, করোনা পরিস্থিতিতে তারা কর্মহীন। অসহায় দিনযাপন করছেন। এর মধ্যে সরকার তাদের প্রতি নজর দিয়ে কর্মসূচির শ্রমিক হিসেবে কাজ করার সুযোগ দিয়েছেন। তাদের ঘামের টাকা ওই ইউপি সদস্য আমানুল্লাহ ৬০০ টাকা করে রেখে দিয়েছেন। শ্রমিকের টাকা আত্মসাৎকারী ইউপি সদস্য আমানুল্লাহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চান তারা।

এব্যাপারে যোগানিয়া ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আমীর হোসেন জানান, আমি ইউপি সদস্য আমানুল্লাহ হাতে প্রত্যেক শ্রমিকের ৪০ দিনের কাজের ৮ হাজার করে টাকা দিয়েছি। ওই ইউপি সদস্য শ্রমিকদের মজুরীর যে টাকা পকেটে উঠিয়েছেন আমি তাকে ওই টাকা ফেরত দিতে বলেছি।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আব্দুল হান্নান জানান, ইউপি সদস্য আমানুল্লাহ শ্রমিকদের ওই টাকা ফেরত না দিলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ বিষয়ে ইউপি সদস্য আমানুল্লাহ এর সাথে মোবাইল ফোনে কথা হলে তিনি জানান, ওরা কাজ কম করছে তাই আমি টাকা কম দিয়েছি। আর এই টাকা অন্য শ্রমিককে অর্থাৎ বদলি শ্রমিককে দিয়েছি।