নালিতাবাড়ীতে ভারতীয় গরুসহ যুবক আটক

291

মো: মঞ্জুরুল আহসান: শেরপুর জেলার নালিতাবাড়ী উপজেলার পোড়াগাঁও ইউনিয়নের সীমান্তঘেষা বারোমারী বাজারে ২২ মে শুক্রবার সকালে ভারতীয় গরুসহ এক যুবককে আটক করেছে স্থানীয়রা।

স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, সীমান্তবর্তী পাহাড়ি অঞ্চলে গরু চোরেরা দীর্ঘদিন ধরে ভারতীয় গরু চুরি করে আসছে। বিশেষ করে ঈদের সময় এই চোর সিন্ডিকেট বেশি তৎপর থাকে। ভারতীয় সীমান্তে চোরদের সাথে এদের যোগাযোগ থাকে সার্বক্ষনিক। ভারতীয় চোরেরা সীমান্ত পার করে দেয়। পরে বাংলাদেশ সীমান্ত থেকে এই চোরেরা গরু নিয়ে গ্রামে পাইকারদের কাছে বা হাটে বিক্রি করে।

শুক্রবার সকালে স্থলবন্দর এলাকা দিয়ে ভারতীয় একটি চোরাই গরু নিয়ে তিন ব্যক্তি অনায়সে সীমান্ত রাস্তা দিয়ে পোড়াগাঁও ইউনিয়নে প্রবেশ করে। টের পেয়ে স্থানীয়রা তাদের ধরার জন্য ধাওয়া করে। তিন জনের মধ্যে দুইজন পালিয়ে গেলেও স্থানীয়দের হাতে গরুসহ আটক হয় পোড়াগাঁও ইউনিয়নের বেকিকুড়া গ্রামের জিয়াউর রহমান (২৫) নামে এক যুবক। পোড়াগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো: আজাদ মিয়া গরুসহ আটককৃত যুবককে গণধোলাই থেকে উদ্ধার করে বারোমারী তার অস্থায়ী কার্যালয়ে হেফাজতে রাখেন। সাদা রংয়ের এই গরুটির কানে একটি স্টিকার রয়েছে। স্টিকারে ইংরেজিতে লেখা রয়েছে-270001এবং 432581.

আটককৃত যুবক জিয়াউর রহমান জানায়, সে এই ব্যবসার সাথে জড়িত হয়ে আরো দুইদিন গরু চুরি করতে সীমান্তে গিয়ে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর ধাওয়া খেয়ে চলে আসে। জিয়াউর স্বীকারোক্তি দিয়ে বলে- আসমত, সুমন, বাবু, নন্নীর পিচ্চি উজ্জল,সজিবসহ ৪/৫ জন প্রায়ই ভারতীয় গরু আনতে যায়। পিচ্চি উজ্জল তাকে ডেকে নিয়ে গেছে বলে সে জানায়।

পোড়াগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো: আজাদ মিয়া গরু চুরির ঘটনাটি নিশ্চিত করে জানান, উল্লেখিত ব্যক্তিরা আরো ১৫ দিন আগে গরু চুরি করতে গিয়েছিল বলে আমি জানতে পারি। এর আগেও চুরি হয়েছিল তা আমি এলাকার মেম্বার ও গন্যমান্যদের সহযোগিতা নিয়ে বর্ডার গার্ড (বিজিবি) কে জানিয়েছিলাম। কয়দিন পর পর গরু চুরি, মাদক, সীমান্ত সড়কে খুন সব মিলিয়ে একটা কঠিন অবস্থা বিরাজ করছে সীমান্তবর্তী এলাকায়। তিনি এই বিষয়টির তদন্তপূর্বক দোষীদের শাস্তি দাবি করেন।

Facebook Comments