নিজেকে গুছিয়ে নিচ্ছেন ফারিয়া

31

দেখতে দেখতে চলচ্চিত্রে দু’বছর পার করলেন নুসরাত ফারিয়া। ২০১৫ সালে অশোক পাতির ‘আশিকি’ ছবির মাধ্যমে ঢালিউডে পা দেন এই অভিনেত্রী। এ ছবিতে তার বিপরীতে অভিনয় করেন কলকাতার অভিনেতা অঙ্কুশ। এরপর ‘হিরো ৪২০’, ‘ধেৎতেরিকি’, ‘প্রেমী ও প্রেমী’, ‘বস টু’ ছবিগুলো মুক্তি পায় তার। এসব ছবিতে ফারিয়ার বিপরীতে কলকাতার অভিনেতা জিৎ, ওম এবং বাংলাদেশের আরিফিন শুভ অভিনয় করেন। তার অভিনীত ছবিগুলো বেশ দর্শকপ্রিয়তাও পায়। বর্তমানে নতুন একটি ছবির কাজ করছেন তিনি। ছবির নাম ‘ইন্সপেক্টর নটি.কে’। এ ছবিতে কলকাতার জনপ্রিয় মুখ জিতের বিপরীতে তিনি অভিনয় করছেন। ইতালিতে টানা শুটিং করার পর বর্তমানে কলকাতায় এ ছবির শুটিং করছেন। সেখান থেকে নুসরাত ফারিয়া মুঠোফোনে মানবজমিনকে বলেন, একদিনের জন্য গত রোববার ইতালি থেকে ঢাকায় এসেছিলাম। তবে একদিন থাকার পরই ‘ইন্সপেক্টর নটি.কে’ ছবির শুটিংয়ে আবারও কলকাতায় আসতে হয়েছে। এ টিমটার সঙ্গে কাজ করে বেশ ভালো লেগেছে। এ ছবিতে আমাকে পুলিশের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যাবে। চরিত্রের নাম সামিরা। বেশ কিছুদিন ধরেই ছবির শুটিং করছি। কলকাতায় আরো কয়েকদিন এ ছবির জন্য শিডিউল দিয়েছি। তারপর অক্টোবরে বাকি কাজ করব। গত কয়েক মাস কাজের ফাঁকে সকাল থেকে সন্ধ্যা ব্যায়াম ও খাবারে বিশেষ নজর দিতে হয়েছে অভিনেত্রী নুসরাত ফারিয়াকে। কারণ, নতুন ছবির জন্য ওজন ঠিক রাখতে হয়েছে তাকে। জিৎ এর সঙ্গে এর আগে ‘বাদশা’ ও ‘বস টু’ ছবিতে অভিনয় করা হয়েছে ফারিয়ার। এটা তাদের একসঙ্গে অভিনীত তৃতীয় ছবি। সবশেষ গত রমজানের ঈদে দু’জনের অভিনীত ‘বস টু’ ছবিটি বাংলাদেশ ও ভারতে মুক্তি পাওয়ার পর বেশ ভালো সাড়া পেয়েছেন বলে জানালেন ফারিয়া। এ ছবিটি পরিচালনা করেন ভারতের পরিচালক বাবা যাদব। নতুন ছবিগুলোতে ভিন্ন সাজে নিজেকে হাজির করতে চান ফারিয়া। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমি বাণিজ্যিক ছবিতে শুধু কাজ করবো, আর্ট ফিল্ম করবো না- এমন কিছু ভাবছি না। মনপছন্দ চরিত্র পেলে দুই ধরনের ছবিতেই কাজ করবো। আর আমি এমন কিছু চরিত্রে কাজ করতে চাই যেন সকল কাজের ঊর্ধ্বে থাকে সেটা। অভিনেত্রী হিসেবে যেন আমাকে সবাই এক কথায় বলে ফারিয়া ‘আউট অব দ্য বক্স’। চলচ্চিত্রে অনেক অভিনেত্রী একের পর এক ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হয়েও যেখানে কাজ শুরু বা শেষ করতে পারছেন না তখন ফারিয়া ধীরে ধীরে নিজেকে গুছিয়ে নিচ্ছেন। একটা ছবি মুক্তির পর আরেকটা নতুন ছবিতে হাত দিচ্ছেন। এজন্য প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়াও তাকে সহাযোগিতা করছে। কারণ, বর্তমানে তাদের অধীনে থেকেই সব কাজ করতে হচ্ছে ফারিয়াকে। এই বছরের শেষদিকে আর কয়টি ছবিতে কাজ করতে চান ফারিয়া? এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি খুব বেশি ছবিতে অভিনয় করতে চাই না। সিদ্বান্ত নিয়েছি বছরে তিনটির বেশি ছবিতে কাজ করবো না। আর আলাদা চরিত্রে তো সকলেই কাজ করতে চায়। তবে আমি এমন কিছু ছবিতে এমন কিছু চরিত্রে অভিনয় করতে চাই যা আলাদা চরিত্রের চেয়েও বেশিকিছু। অভিনেত্রী হিসেবে এটাই আমার ভবিষৎ পরিকল্পনা। প্রত্যেক অভিনেত্রী আলাদা আলাদা চরিত্রে অভিনয় করতে পছন্দ করেন। অনেকের স্বপ্নের অভিনেত্রীও থাকে। যাকে আদর্শ মনে করে সামনে এগিয়ে যাওয়ার ইচ্ছে হয়। তেমন কেউই কি আছে ফারিয়ার? উত্তরে এই অভিনেত্রী বলেন, আমার পছন্দের অভিনেত্রীর তালিকাটা লম্বা। তাই আমি আমার মতো করেই কাজ করে যাচ্ছি। আর ছবির ভালো গল্প, চরিত্র ঠিকভাবে ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করি। সেটা ঠিকভাবে করতে পারলে আমিও হয়তো অনেকের স্বপ্নের অভিনেত্রী হতে পারব।