পাকিস্তান বনাম শ্রীলঙ্কা ​উত্তেজনায় কাঁপছে পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কা

39

প্রথম টেস্টের মতো দ্বিতীয় টেস্টের সমাপ্তিটাও হচ্ছে দারুণ নাটকীয়তায়। জিতে হলে পাকিস্তানের চাই আরো ৭৫ রান। আর শ্রীলঙ্কার চাই মাত্র ৩ উইকেট। আসাদ শফিক শতরান করে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন। পাকিস্তান জিতলে সিরিজ ১-১ ড্র হবে। আর শ্রীলঙ্কা জিতলে পাকিস্তান ২-০তে হোয়াইট ওয়াশ হবে। সোমবার ৩১৭ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে পাকিস্তান চতুর্থ দিন শেষ করেছিল ৫ উইকেটে ১৯৮ রান নিয়ে। পাকিস্তানের প্রয়োজন ১১৯ রান হাতে উইকেট ছিল মাত্র পাঁচটি। আসাদ শফিক ও সরফরাজ আহমেদ অপরাজিত ছিলেন যথাক্রমে ৮৬ ও ৫৭ রানে। আজ সরফরাজ ৬৮ রানে আউট হয়ে যান। এরপরে মোহাম্মদ আমির নেমে আউট হন ৪ রানে। দুটি উইকেটই নেন দিলুরয়ান পেরেরা। আগের দিন দিলরুওয়ান পেরেরা পেয়েছিলেন ৩ উইকেট। অষ্টম উইকেটে আসাদ শফিক ও ইয়াসির শাহ জুটি বেধে লড়ে যাচ্ছেন। শফিক ১৫১ বলে ১০ চারে তার ১১তম টেস্ট শতরান পুরো করেন।
দুবাই’য়ে নিজেদের প্রথম গোলাপি বলের ম্যাচে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নামে চান্ডিমালের দল। প্রথম ইনিংসে সব উইকেট হারিয়ে সংগ্রহ করে ৪৮২ রান। দিমুথ করুনারতেœ ৪ রানের জন্য বঞ্চিত হন প্রথম দ্বিশতক থেকে। অধিনায়ক চান্ডিমালের ব্যাট থেকে আসে ৬২ ও নিরোসান ডিকওয়েলা করেন ৫২ রান। ৬ টি উইকেট বাগিয়ে নেন লেগ স্পিনার ইয়াসির শাহ। মোহাম্মদ আব্বাস ঝুলিতে ভরেন ২ উইকেট। জবাবে আজহার আলী (৫৯) ও হারিস সোহেলের (৫৬) অর্ধশতকে ২৬২ রান করতে সক্ষম হয় পাকিস্তান। রঙ্গনা হেরাথ ও দিলরুওয়ান পেরেরা পান ৩টি করে উইকেট। ২২০ রানে এগিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটে নামে শ্রীলঙ্কা। মাত্র ৯৬ রানে শেষ হয় লঙ্কানদের দ্বিতীয় ইনিংস। পেসার রিয়াজ তুলে নেন ৪ উইকেট , মাত্র এক ওভার হাত ঘুরিয়ে ৩ উইকেট পান হারিস সোহেল।
প্রথম টেস্ট ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে নাটকীয় ভাবে ২১ রানে জয় পায় শ্রীলঙ্কা। এই সিরিজে আরো থাকছে ৫ ম্যাচ ওয়ানডে ও ৩ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজ। তৃতীয় ও  শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে লাহোরে।