ফিলিপাইনে কার একাউন্টে এক লাখ ডলার পাঠিয়েছিল লাস ভেগাসের ঘাতক!

25

যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে ভয়াবহ হামলা চালিয়ে কমপক্ষে ৫৮ জনকে হত্যাকারী স্টিফেন প্যাডোক ফিলিপাইনে তার গার্লফ্রেন্ডের দেশে এক লাখ ডলার স্থানান্তর করেছিলেন। তদন্তে এ তথ্য বেরিয়ে এসেছে। ওদিকে স্টিফেন প্যাডোক কোনো সন্ত্রাসী সংগঠনের সঙ্গে জড়িত কিনা তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায় নি, তবে লাস ভেগাসে সে যে হত্যাকা- ঘটিয়েছে তার দায় স্বীকার করেছে আইএস। রোববার রাতে লাস ভেগাসে মান্দালয় বে হোটেলের ৩২ তম তলায় অবস্থান নিয়ে একটি উন্মুক্ত কনসার্টে গুলি করে সে কমপক্ষে ৫৮ জনকে হত্যা করে। আহত করে কমপক্ষে ৫২৭ জনকে। এরপর ওই হোটেলে তার কক্ষ ও ফ্লোরিডায় তার বাড়ি থেকে পুলিশ বিপুল পরিমাণ অস্ত্র জব্দ করে। কিন্তু কিভাবে সে হোটেল কক্ষে এত অস্ত্র জমা করেছিল সে বিষয়ে পরিষ্কার কোনো উত্তর মেলে নি। এসব নিয়ে তদন্ত চলছে যুক্তরাষ্ট্রে। এরই মধ্যে পুলিশ দেখতে পেয়েছে, তার গার্লফ্রেন্ডের বাড়ি ফিলিপাইনে। সেকানকার একটি ব্যাংক একাউন্টে এক লাখ ডলার স্থানান্তর করেছে স্টিফেন প্যাডোক। সেই একাউন্টটি কার এ বিষয়ে মুখ খোলে নি পুলিশ। তবে তারা জানিয়েছে ওই অর্থ স্থানান্তর হয়েছে ফিলিপাইনের এনবিসি ব্যাংকে। স্টিফেন প্যাডোকের ফিলিপিনো ওই গার্লফ্রেন্ডের নাম মারিলো ড্যানলে (৬২)। প্যাডোক যখন ওই গণহত্যা চালায় তখন তিনি ছিলেন বিদেশে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তিনি এফবিআইয়ের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য যুক্তরাষ্ট্রে ফিরছিলেন বলে খবর পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার লাস ভেগাস শেরিফ জোসেফ লম্বারডো নিশ্চিত করে বলেছেন, এই তদন্তে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি ড্যানলে। সোমবার কর্তৃপক্ষ যখন জানতে পারে ড্যানলে লাস ভেগাসে নেই তখন তার সন্ধান শুরু হয়। তারা নিশ্চিত ছিলেন, এ সময়ে ড্যানলে টোকিও এবং ফিলিপাইন এই এলাকায় সফর করছেন। তার সঙ্গে যোগাযোগ করে তদন্ত শুরু হয়ে গেছে। তার কাছ থেকে বেশ কিছু তথ্য এরই মধ্যে পেয়েছে কর্তৃপক্ষ। ধারণা করা হচ্ছে, ড্যানলে পুলিশকে বলেছেন, তাদের দু’জনের সম্পর্ক শুরু হয় এ বছরের শুরুর দিকে। কিন্তু অনলাইন ডেইলি মেইল মঙ্গলবার এমন কিছু ছবি হাতে পেয়েছে যা এর উল্টো কথা বলে। এর মধ্যে ২০১৩ সালের পারিবারিক একটি ছবিতে ফিলিপাইনে দেখা গেছে স্টিফেন প্যাডোক ও ড্যানলেকে। তাদেরকে ২০১৪ সালে হোটেলে ও নাইট ক্লাবে দেখা গেছে। প্রথম ছবিতে দেখা গেছে ২০১৩ সালে ম্যানিলায় সফরে গিয়েছিল স্টিফেন প্যাডোক। সে সময় ড্যানলের পরিবারের সঙ্গে এক খাবার টেবিলে হাস্যোজ্বল দেখা যায় তাদেরকে। তাদেরকে দেখা যায় স্থানীয়ভাবে প্রচলিত ‘কামায়ান ডিনার’ করছেন। হাত দিয়ে খাওয়া হয় বলে এমন ভোজের নাম দেয়া হয়েছে কামায়া। ফিলিপিনো শব্দ কামায় অর্থ হাত। ওই অনুষ্ঠানে তাদেরকে বন্ধু-বান্ধবের সঙ্গে হাত দিয়ে মাছ, শাকসবজি ও ভাগ খেতে দেখা যায়। এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ড্যানলির বোন লিজা ওয়ারনার। তিনি বসবাস করেন অস্ট্রেলিয়ার ব্রিসবেনে। অনুষ্ঠান শেষে তিনি কামায়ান ব্লুস শিরোনাম ব্যবহার করে ফেসবুকে এ ছবি পোস্ট করেছিলেন। উল্লেখ্য, স্টিফেন প্যাডোকের গার্লফ্রেন্ড অস্ট্রেলিয়ার নাগরিকও। ২০ বছর আগে তার প্রথম স্বামী মারা যান। তারপরই তিনি যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান। এরপর তিনি বিয়ে করেন যুক্তরাষ্ট্রের আরকানসাসের বাসিন্দা গিয়ারি ড্যানলেকে। কিন্তু ২০১৩ সালের এপ্রিলে তারা আলাদা হয়ে যান। তার আগে এক সঙ্গে তারা ২২ বছর ঘর সংসার করেন। ওই এপ্রিলেই স্টিফেন প্যাডোককে ছবিতে দেখা যায় ম্যানিলায়।

 

 

 

 

 

 

 

সূত্র : মানবজমিন অনলাইন পত্রিকা