ফেল্পস বনাম হাঙর সাঁতার প্রতিযোগিতা: পুরোটাই ভুয়া! (ভিডিও)

38

জলের হিংস্র প্রাণী হাঙর। অত্যন্ত ক্ষীপ্র ও গতিসম্পন্ন। পলকের মধ্যে শিকার করে। পানির নিচের অন্যতম ভয়ঙ্কর প্রাণী সাদা হাঙর। একজন মানুষের জন্য তারসঙ্গে সাঁতার প্রতিযোগিতায় যাওয়া বোকামি বৈ কিছুই নয়। হোক না সে বিশ্বের সবচেয়ে বড় সাঁতারু। তাই বলে সাদা হাঙরের সঙ্গে সমুদ্রের অথৈ জলে সাঁতার প্রতিযোগিতা! গত প্রায় মাস খানেক ধরে ‘ডিসকভারি’ চ্যানেলে একটি বিজ্ঞাপন দেখানো হচ্ছিল। হাঙরের সঙ্গে সাঁতার প্রতিযোগিতায় নামবেন বিশ্বের সবচেয়ে নামকরা সাঁতারু মাইকেল ফেল্পস। যার ঝুলিতে রয়েছে অলিম্পিকে ২৩ স্বর্ণ। অনেকের কাছে বিষয়টি বিশ্বাসযোগ্য মনে হয়নি। একটি সাদা হাঙরের সঙ্গে একজন মানুষে কীভাবে সাঁতার প্রতিযোগিতায় পেরে দেবেন! আর ভয়ঙ্কর পরিস্থিতির কথা তো আছেই। অপেক্ষার পর অবশেষে গত রোববার ডিসকভারি চ্যানেলে দেখানো হয় ‘হাঙর বনাম ফেলপস’ সাঁতার প্রতিযোগিতা। দর্শকদের চোখ ছানাবড়া! হাঙর ও ফেলপস পাশাপাশি সাঁতার কাটছে! একে অপরকে পেছনে ফেলার জন্য চেষ্টা করছে। কীভাবে সম্ভব? এক সময় ১০০ মিটারের সাঁতার শেষ হলো। মাত্র দুই সেকেন্ডের ব্যবধানে হাঙরের কাছে হেরে গেলেন ফেলপস। সাদা হাঙরের সময় ৩৬.১ আর ফেলপসের লাগে ৩৮.১ সেকেন্ড। আসলেই কি ব্যাপারটা ঘটেছে? সত্যিই যদি ঘটে থাকে তাহলে হাঙরের গতি এত কম কেন? ভয়ঙ্কর কোনো ঘটনাও বা ঘটলো না কে? এমন নানা প্রশ্নের জবাব পাওয়া গেলো পরে। আসলে পুরো ঘটনাটা সাজানো। কম্পিউটারের কারসাজি। ‘হাঙর সপ্তাহ’ উপলক্ষে এই আয়োজন করে ডিসকভারি চ্যানেল। দক্ষিণ আফ্রিকার যে সমুদ্রে তাদের এই প্রতিযোগিতা দেখানো হয়েছে তা আসলে একই সময়ে নয়। ফেলপস সেখানে সাঁতার কেটেছেন ঠিকই। কিন্তু তার পাশের হাঙারটি আসল নয়। এটা দুইভাবে করা হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। প্রথমত, হাঙরটি ছিল কৃত্রিম ও কম্পিউটার চালিত। ফেলপসের প্রতিযোগিতার সময় ওই হাঙরটি কম্পিউটার দিয়ে নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছিল। ওটা আদৌ রক্ত-মাংসের হাঙর নয়। দ্বিতীয়ত, হাঙরটি আসল। কিন্তু সেটা ফেলপসের সঙ্গে সাঁতার কাটেনি। হাঙরের সাঁতারের দৃশ্যটি আগে ধারন করা। পরে সেটা ফেলপসের সাঁতারের দশ্যের সঙ্গে কম্পিউটারের কারসাজিতে এমনভাবে জুড়ে দেয়া হয় যে, দর্শকরা বুঝতেই পারেনি- ওটা আলাদা সময়ের। টিভির পর্দায় দেখে মনে হচ্ছিল, ফেলপস ও ভয়ঙ্কর সাদা হাঙর পাশাপাশি সাঁতার কাটছে। কিন্তু আসলে তা নয়।
প্রকৃত ঘটনা প্রকাশ হওয়ার পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মাইকেল ফেলপসের কঠোর সমালোচনা হচ্ছে। তিনি কেন এমন কারসাজির আশ্রয় নিতে গেলেন? দর্শকদের কেন বোকা বানানো হলো? হাঙর সপ্তাহ পালনের জন্য তো অন্য কোনোকিছুর আয়োজন করা যেত। ফেলপস সমালোচনার জবাব দিয়েছেন। এর পেছনে হাঙর সপ্তাহ পালন বৈ অন্য কোনো উদ্দেশ্য ছিল বলে জানালেন তিনি।