ভোটার তালিকায় ট্রাম্প জামাতা একজন নারী!

26

আট বছর ধরে ‘নারী’ হিসেবে ভোটার তালিকায় নিবন্ধিত রয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা ও জামাতা জারেড কুশনার। দেশটির বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের প্রতিবেদনে এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। নিউ ইয়র্কের ভোটার তথ্য সংরক্ষণ দপ্তর জানিয়েছে, ২০০৯ সালে প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টা ‘নারী’ হিসেবে ভোটার তালিকায় নথিভুক্ত হন। এর আগেও ট্রাম্প জামাতা কুশনারকে নিয়ে বিভিন্ন বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। সিবিএস-এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হোয়াইট হাউসের সিকিউরিটি ক্লিয়ারেন্স-এর জন্য কুশনার ভুলভাবে কাগজপত্র জমা দিয়েছিলেন। পরে তাকে পুনরায় তা জমা দিতে হয়। এদিকে, দ্য হিল নিউজ বলছে, ২০০৯ সালের আগে কুশনার নিউ জার্সিতে ভোটার তালিকাভুক্ত হয়েছিলেন। সেখানে তার লিঙ্গ ‘অজানা’ উল্লেখ করা হয়। ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে, ভোটার তালিকায় নিবন্ধন নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টির ক্ষেত্রে কুশনার প্রথম ব্যক্তি নন। এর আগে ডনাল্ড ট্রাম্পের কয়েকজন ঘনিষ্ঠ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে গত বছরের নির্বাচনের সময় একাধিক রাজ্যে ভোটার হওয়ার অভিযোগ উঠেছিল। এদের মধ্যে হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি শন স্পাইসার ও সাবেক স্ট্র্যাটেজিস্ট স্টিফেন ব্যাননও রয়েছেন। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প অভিযোগ করে আসছেন যে, হিলারির পক্ষে লাখ লাখ অবৈধ ভোট দেয়া হয়েছে। কিন্তু কখনো তার দাবির সমর্থনে কোনো প্রমাণ দেননি। এছাড়া সম্প্রতি কুশনারের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয় কাজে ব্যক্তিগত ইমেইল ব্যবহার করার অভিযোগ উঠেছে।
অথচ ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারণার সময় দাবি উঠেছিল, পররাষ্ট্রমন্ত্রী থাকা অবস্থায় রাষ্ট্রীয় কাজে ব্যক্তিগত ইমেইল ব্যবহার করার কারণে হিলারি ক্লিন্টনকে জেলে পাঠানো হোক।

 

 

 

সূত্র : মানবজমিন অনলাইন পত্রিকা