রুশ কন্যার বিয়ে, পাত্র শেরপুরের ধর্মকান্ত সরকার

199

 

ইন্টারন্যাশনাল সোসাইটি ফর কৃষ্ণা কন্সিয়াসনেস বা ‘ইসকনে’র দুই সদস্যের বিয়ে হলো শুক্রবার রাতে শেরপুরের গোপাল জিউ’র মন্দিরে। পাত্র শেরপুরের নালিতাবাড়ীর ধর্মকান্ত সরকার। এমন বিয়েতো কতোই হয়, কিন্তু এই বিয়েটি বিশিষ্ট হলো পাত্রীর গুনে। পাত্রীর নাম সিভেত লেনার, রুশ কন্যা। রাশিয়ার নাগরিক। সেও ‘ইসকন’প্রেমি, কৃষ্ণভক্ত। ভালোবাসার টানে সিভেত বাংলাদেশে ছুটে এসেছে প্রণয়ীকে পাবার আশায়। বিয়ে করেছে ‘হিন্দু’ ধর্মমতেই। সিভেত ও ধর্মকান্তের এমন পরিণয়ই হয়ে উঠেছে সংবাদ উপাদান।
বর ধর্মকান্ত সরকার নালিতাবাড়ী ধীরেন্দ্রকান্ত সরকারের ছেলে। ১৯৯৭ সনে উচ্চতর পড়াশোনার যান রাশিয়ায়। সেখানে পড়াশোনা শেষ করার পর শুরু করেন ব্যবসা। এরই মাঝে যাতায়াত ইন্টারন্যাশনাল সোসাইটি ফর কৃষ্ণা কন্সিয়াসনেস বা ইসকনে’র মস্কো শাখায়। সেখানেই সিভেতের সাথে দেখা ধর্মকান্তের। আলাপ পরিচয় শেষে দুজনের প্রণয়। যার পরিণতি শুক্রবার রাতের বিয়ে।
ধর্মকান্ত সরকার জানান, তাদের প্রণয়ের পর তিনি দেশে চলে আসলেও দুজনের যোগাযোগে ভাটা পড়েনি। আর সেই যোগাযোগের টানেই গত একমাস আগে বাংলাদেশে আসনে সিভেত। পরে নিজ পরিবারের মতেই পরিণয়সূত্রে আবদ্ধ হন তারা।