রোহিঙ্গাদের নিয়ে বিএনপির কর্মকাণ্ড লোক দেখানো

32

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, রোহিঙ্গাদের নিয়ে
কর্মকাণ্ড বিএনপির লোক দেখানো। তারা শুধু মায়া কান্না করছে। আমি রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পে গিয়ে পাঁচদিন পর ঘুরে আসলাম। তাদের কি এই ধৈর্য আছে? এটার জন্য মন ও মানসিকতার দরকার। চেতনার দরকার। শুধু মায়াকান্না করে লাভ হবে না।
গতকাল সকালে রাজধানীর জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় মানিক মিয়া এভিনিউয়ে ‘বিশ্ব ব্যক্তিগত গাড়ি মুক্ত দিবস’ উপলক্ষে এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। বাংলাদেশে সরকারিভাবে এই প্রথম ঘটা করে বিশ্ব ব্যক্তিগত গাড়ি মুক্ত দিবস পালিত হলো।
ওবায়দুল কাদের এই দিবস উপলক্ষে মাসের প্রথম সপ্তাহের শুক্রবার ১ দিন মানিক মিয়া এভিনিউকে ব্যক্তিগত গাড়ি মুক্ত রাখার ঘোষণা দিয়েছেন। সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজার একপাশের রাস্তা বন্ধ করে সকাল ৯টা থেকে অনুষ্ঠান শুরু হয়। এতে বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষার্থী এবং একাধিক সামাজিক সংগঠনের কর্মীরা অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠান শেষে বিভিন্ন বয়সের মানুষ সেখানে সাইকেল চালান। অনেকেই স্কেটিংয়ে অংশ নেন। প্রধান অতিথি নিজেও অনুষ্ঠান শেষে কিছুক্ষণ সাইকেল চালান। অনুষ্ঠানটি আয়োজন করেন ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষ।
অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি কোন দল এবং তারা কোন চেতনা লালন করে তা সারা বাংলাদেশের মানুষ জানে এবং বুঝে। তাদের সব কাজ লোক দেখানো। তারা দেশ ও মানবতার পক্ষে কোনোদিন একনিষ্ঠভাবে কাজ করেনি। তাদের মুখের কথা এবং মনের কথার সঙ্গে কোনো মিল নেই। এটা এতদিনে প্রমাণ হয়ে গেছে। দেশের জনগণ খুব ভালোভাবে বুঝে গেছে।
আওয়ামী লীগের নেতারা সবাই সড়ক পথে গাড়িতে করে গেছেন। আর বিএনপির নেতারা গেছেন উড়োজাহাজে করে। তারা সেখানে ছবি তুলতে গেছেন। তারা সেখানে ত্রাণ বিতরণ করতে যাননি। তার বসে বসে লিপ সার্ভিস দিচ্ছে। কোনো কাজ করছে না। তারা অভিযোগ করেছেন, তাদের নাকি ত্রাণ কাজে বাধা দেয়া হচ্ছে। আমি তাদের বলেছি, কোথায় তাদের ত্রাণ কাজে বাধা দেয়া হচ্ছে তা আমাদেরকে জানান। তাদের আমি ব্যক্তিগত টেলিফোন নম্বরও দিয়েছি। কিন্তু, তারা আমার কাছে নির্দিষ্টভাবে কোনো স্থানের অভিযোগ না করে তারা ঢাকায় প্রেস ব্রিফিং করে বলছেন যে, তাদের নাকি ত্রাণ কাজে বাধা দেয়া হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়িয়ে বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা সারা বিশ্বে প্রশংসিত হয়েছেন। টেকনাফে এবং উখিয়ায় সেনাবাহিনী পুরোদমে কাজ করেছে। ড. কামাল যে জাতীয় ঐক্যের ডাক দিয়েছেন তা সরকার কতটা সাড়া দিবেন সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, সরকারের সমালোচনা করে কখনো কি জাতীয় ঐক্য হয়? জাতীয় ঐক্য কি তাদের মুখে না মনে রয়েছে তা স্পষ্টভাবে জানতে হবে।
বিশ্ব ব্যক্তিগত গাড়ি মুক্ত দিবস উপলক্ষে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, আজ সারা বিশ্বে ব্যক্তিগত গাড়ি মুক্ত দিবস পালিত হচ্ছে। আমাদের দেশেও এই দিবস পালিত হচ্ছে। আমরা যেমন সুন্দর সুন্দর কথা বলতে চাই তেমনি বাস্তবায়নও করতে চাই। এক্ষেত্রে সবার সহযোগিতা আমাদের কাম্য। তিনি মাসের প্রথম সপ্তাহের শুক্রবার একদিন রাজধানীর সংসদের দক্ষিণ প্লাজার মানিক মিয়া এভিনিউকে ব্যক্তিগত গাড়ি মুক্ত রাখার ঘোষণা দেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব শফিকুল ইসলাম। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন।

 

 

 

 

 

সূত্র : মানবজমিন অনলাইন পত্রিকা