রোহিঙ্গা শরণার্থীদের সাহায্য করতে সেনাবাহিনীকে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ

27

মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের সহায়তা করতে সেনাবাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কক্সবাজারে মিয়ানমার সীমান্তবর্তী এলাকায় শীঘ্রই সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হবে। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বুধবার এসব কথা বলেছেন। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি। খবরে বলা হয়, ২৫শে আগস্টের পর থেকে এখন পর্যন্ত লাখ লাখ রোহিঙ্গা নির্যাতন থেকে বাঁচতে মিয়ানমার ছেড়ে বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে। পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের অনেকেই আশ্রয় নিয়েছে কক্সবাজারের মিয়ানমার সীমান্তবর্তী অঞ্চলে। এত রোহিঙ্গা শরণার্থীদের সামলাতে হিমশিম খাচ্ছে ত্রাণ সংস্থা ও বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষ। এখন তাদেরকে সাহায্য করতে মোতায়েন করা হচ্ছে সেনাবাহিনী। ওবায়দুল কাদের এএফপিকে বলেন, ‘যেসব রোহিঙ্গারা ওই ভারী বৃষ্টির মধ্যেও খোলা আকাশের নিচে ঘুমাচ্ছে, তাদের জন্যে আশ্রয়কেন্দ্র ও শৌচাগার নির্মাণ করবে সেনাবাহিনী।’ তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের জন্যে আশ্রয়কেন্দ্র ও শৌচাগার নির্মাণ নিশ্চিত করা বেশ কঠিন কাজ। এর জন্যে সেখানে সেনাবাহিনীর উপস্থিতি বিশেষভাবে প্রয়োজনীয়।’ তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব নির্দেশ দিয়েছেন।
আশ্রয়কেন্দ্র ও শৌচাগার নির্মাণের পাশাপাশি সেনাবাহিনী ত্রাণ বিতরণে শৃঙ্খলা নিশ্চিত করার বিষয়টিও সামলাবে। উল্লেখ্য, শরণার্থীদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ বেশ বিশৃঙ্খল একটি প্রক্রিয়ায় পরিণত হয়েছে। ইতিমধ্যে ত্রাণ সংগ্রহ করতে গিয়ে পায়ের নিচে চাপা পড়ে শরণার্থীদের নিহত হওয়ার ঘটনাও ঘটেছে। এর আগে সেনাবাহিনীকে চট্টগ্রাম বিমানবন্দর থেকে কক্সবাজারে বৈদেশিক ত্রাণ পাঠানোর কাজ দেয়া হয়েছিলো।

 

 

 

 

 

 

 

সূত্র : মানবজমিন অনলাইন পত্রিকা