রোহিঙ্গা সঙ্কট: রুদ্ধদ্বার বৈঠক নিরাপত্তা পরিষদে, কাল উন্মুক্ত বিতর্ক

22

মিয়ানমারের সহিংসতা নিয়ে রুদ্ধদ্বার বৈঠকে হয়েছে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে। মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর চালানো নির্যাতন, তার ফলে বন্যার পানির মতো তাদের দেশত্যাগ ইস্যুতে আলোচনা হয় তাতে। তবে এর বিরুদ্ধে কি পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে তা স্পষ্ট জানা যায় নি। বৃহস্পতিবার নিরাপত্তা পরিষদের উন্মুক্ত বিতর্ক হবে এ ইস্যুতে। তাতে বক্তব্য রাখবেন জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্টনিও গুতেরাঁ। তিনি মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সহিংসতার বিস্তারিত তুলে ধরবেন। এর পর বিতর্কের পর বোঝা যাবে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে কি পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে নিরাপত্তা পরিষদ। তবে জাতিসংঘে বৃটিশ উপ রাষ্ট্রদূত জোনাথন অ্যালেন বলেছেন, সহিংসতা যাতে বন্ধ হয় সেজন্য মিয়ানমারকে পরিস্কার বার্তা দিতে হবে। রাখাইন রাজ্যে মানবিক সহায়তা অনুমোদন করতে হবে। রোহিঙ্গাদের মর্যাদা নির্ধারণ করতে হবে। ওদিকে ফরাসি রাষ্ট্রদূত ফ্রাঁসোয়া দেলাত্রি বলেছেন,মিয়ানমারের ওপর তীব্র চাপ সৃষ্টি করতে নিরাপত্তা পরিষদকে কঠোর ও ঐক্যবদ্ধ সিদ্ধান্ত নিতে হবে। এ মাসের শুরুর দিকে এই সহিংসতা বন্ধের আহ্বান জানিয়েছিল নিরাপত্তা পরিষদ। তাতে সমর্থন দিয়েছিল চীন। দেশটি মিয়ানমারের সাবেক সামরিক জান্তাদের মিত্র বলে পরিচিত। এমন কি এখনও নির্বাচিত সরকার ক্ষমতায় আসার পর তাদেরকেই ‘বিগ ব্রাদার’ মানছে মিয়ানমার। নিরাপত্তা পরিষদের ওই আহ্বান ও তাতে চীনের সমর্থনের পরও রোহিঙ্গাদের দেশত্যাগ অব্যাহত রয়েছে। অন্যদিকে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে মানবতা বিরোধী অপরাধ ঘটাচ্ছে মিয়ানমার এমন অভিযোগ করছে শীর্ষ স্থানীয় মানবাধিকার বিষয়ক সংগঠনগুলো। তারা জরুরি ভিত্তিতে এ জন্য পদক্ষেপ নিতে আহ্বান জানিয়েছে নিরাপত্তা পরিষদের প্রতি। মানবাধিকার বিষয়ক সংগঠন হিউম্যান রাইটস ওয়াচের জাতিসংঘে নিয়োজিত পরিচালক লোউ চারবোনেউ নিরাপত্তা পরিষদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে জরুরি ভিত্তিতে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা দিতে হবে। রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে যারা অপরাধ সংঘটিত করছে তাদের বিরুদ্ধে অবরোধ দিতে হবে। তিনি বলেন, আমরা আশা করি এই পরিষদের মাধ্যমে জরুরি ভিত্তিতে পদক্ষেপ নেবেন জাতিসংঘ মহাসচিব। ওদিকে আগামী সপ্তাহে মিয়ানমার পরিস্থিতি নিয়ে ব্রিফ করতে জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনানকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে ফ্রান্স।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

সূত্র : মানবজমিন অনলাইন পত্রিকা