শিশুকে স্তন্যপান করানোর ছবি দিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি করেছেন কিরগিজ প্রেসিডেন্ট কন্যা

28

কিরগিজস্তানের প্রেসিডেন্টের কনিষ্ঠ কন্যা আলিয়া শাগিয়েভা অন্তর্বাস পরিহিত অবস্থায় তার শিশুকে স্তন্যপান করাচ্ছেন(ব্রেস্টফিডিং), এমন একটি ছবি স্তন্যপান ও সেক্সুয়ালাইজেশন নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি করেছে। তিনি এপ্রিল মাসে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছবিটি পোস্ট করেন। তার পোস্টের ক্যাপশন ছিলো: ‘আমি আমার সন্তানকে যখনই এবং যেখানেই দরকার সেখানেই খাওয়াবো।’ তবে ছবিটির কারণে তাকে অনৈতিক আচরণের অভিযোগে অভিযুক্ত করা হলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সাইট থেকে তিনি ছবিটি সরিয়ে নেন। এ খবর দিয়েছে বিবিসি। বিবিসির সঙ্গে একান্ত এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে এতো হৈচৈ হওয়ার পেছনে কাজ করেছে এমন একটি সংস্কৃতি যেটি নারীর গঠনকে অতিমাত্রায় ‘সেক্সুয়ালাইজ’ করে রেখেছে।’ তিনি বলেন, ‘আমাকে যেই শরীরটি দেওয়া হয়েছে সেটি অমার্জিত নয়। এটি কাজ করে। এর উদ্দেশ্য হচ্ছে আমার সন্তানের শরীরবৃত্তীয় প্রয়োজন মেটানো, সেক্সুয়ালাইজ করা নয়।’ এমন নয় যে শুধুমাত্র কিছু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারীরাই তার ছবির প্রতি নিন্দা জানিয়েছে। তার বাবা প্রেসিডেন্ট আলমাজবেক আতাম্বায়েভ ও মা রাইসাও বিষয়টি নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। শাগিয়েভা বলেন, ‘তারা এটা পছন্দ করেনি। আমি তাদের ক্ষোভ মেনে নিয়েছি, কারণ নতুন প্রজন্মরা সবসময় তাদের পিতা-মাতার চেয়ে কম রক্ষণশীল হবে।’ শাগিয়েভা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ সক্রিয় থাকেন। তিনি প্রায়ই তার নিজস্ব চিত্রকর্ম, তার ও তার স্বামীসহ শিশুর পোট্রেইট পোস্ট করে থাকেন। তিনি ব্রেস্টফিডিং নিয়ে বলেন, ‘আমি যখন আমার সন্তানকে স্তন্যপান করাই তখন আমার মনে হয় আমি তাকে আমার সেরাটা দিচ্ছে। নিজের সন্তানের যত্ন নেওয়া আর তার প্রয়োজনে সাড়া দেওয়া আমার কাছে মানুষের কথার চেয়ে বেশী গুরুত্বপূর্ণ।’