শেরপুরের আলোচিত শিশু ধর্ষণ মামলার আসামী জসিম উদ্দিন অবশেষে আদালতে আত্মসর্ম্পণ

56

স্টাফ রিপোর্টার: শেরপুর জেলার সদর উপজেলার চরশেরপুর ইউনিয়নের দশকাহনীয়া গ্রামের ৩য় শ্রেণির শিক্ষার্থী লিলা (১১) কে ধর্ষণের মামলার একমাত্র আসামী লম্পট জসিম উদ্দিন ১০ দিন পলাতক থাকার পর অবশেষে ১৬ অক্টোবর সোমবার ৩ টার দিকে স্বেচ্ছায় আদালতে গিয়ে আত্মসর্ম্পণ করেছে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার চরশেরপুর ইউনিয়নের দশকাহনীয়া গ্রামের জনৈক হাতু মিয়ার বখাটে ও লম্পট ছেলে দুই সন্তানের জনক জসিম উদ্দিন ৩য় শ্রেণির ওই শিক্ষার্থী গত ৬ অক্টোবর ঘটনার দিন বিকেলে বাজার করে বাড়ি ফেরার পথে রাস্তায় একা পেয়ে তাকে একটি ধান খেতের পার্শ্বে ঝোপের আড়ালে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে। পরে ওই শিশুকে এলাকাবাসী ও তার অভিভাবকেরা উদ্ধার করে শেরপুর জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনার পর থেকে ওই ধর্ষক জসিম উদ্দিন এলাকা থেকে পালাতক থাকে। অবশেষে জসিম সোমবার বিকেলে আদালতে আত্মসর্ম্পণ করলে বিজ্ঞ আদালত তাকে জেলা কারগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এদিকে এলাকাবাসী এ প্রতিনিধিকে জানিয়েছে, জসিম ওই শিশুকে ধর্ষণের পর তার স্ত্রী লজ্জায় জসিমকে তালাক দিয়েছেন।