শেরপুরে জলাতঙ্ক নির্মূলে কুকুর ধরে টিকাদান কার্যক্রম সমাপ্ত

54

জিএইচ হান্নান: শেরপুরে জলাতঙ্ক নির্মূলের লক্ষ্যে কুকুর ধরে ধরে টিকাদান কার্যক্রম অভিযান সমাপ্ত করা হয়েছে। ৪ জুন শুক্রবার থেকে ৮ জুন মঙ্গলবার পর্যন্ত শেরপুর সদর উপজেলার ১৪ ইউনিয়ন ও ১টি পৌর শহরে এই টিকাদান অভিযান কার্যক্রম (এমডিভি) অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ কার্যক্রমে ৪ হাজারের উপর টিকা দেয়া হয়।

টিকা প্রদান কার্যক্রমের অংশ হিসেবে শেরপুর সদর উপজেলায় ফরিদুল ইসলামে নেতৃত্বে ৭৬ জন সদস্য বিভিন্ন এলাকায় এলাকায় গিয়ে কুকুর ধরে জলাতঙ্কের টিকা দেন।

জলাতঙ্ক রোগ প্রধানত কুকুরের কামড় বা আঁচড়ে ছড়ায়। এটি একটি মরণব্যাধি। এই রোগ নিয়ে জনমনে আতঙ্ক রয়েছে। সেই আতঙ্ক থেকেই কুকুর সম্পর্কে মানুষের বিরূপ ধারণা তৈরি হয়েছে। দেশকে জলাতঙ্কমুক্ত করার লক্ষ্যে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় যৌথভাবে জাতীয় জলাতঙ্ক নির্মূল কর্মসূচি হাতে নেয়। এ কর্মসূচির অংশ হিসেবে সারাদেশে জলাতঙ্ক নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল কেন্দ্র চালু করা হয়। টিকা প্রদান কার্যক্রমের অংশ হিসেবে শেরপুর সদর উপজেলা ও পৌরসভার বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় গিয়ে কুকুর ধরে জলাতঙ্ক টিকা দেয়া হয়। টিকা দেয়ার পর ওই সব কুকুরকে লাল রং দিয়ে শরীরে চিহ্নিত করে দেয়া হয়।

সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোবারক হোসেন বলেন, জলাতঙ্ক নির্মূলের লক্ষে শেরপুর সদর উপজেলা ও একটি পৌরসভায় কুকুর ধরে ধরে টিকা দেয়া হয়। এতে ৫ হাজার কুকুরকে টিকাদানের আওতার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করার হলেও ৮ জুন মঙ্গলবার টিকাদান কার্যক্রমের শেষ দিন পর্যন্ত ৪ হাজারের বেশি কুকুরকে টিকা দেয়া হয়েছে। তিনি আরো বলেন ২০২২ সালের মধ্যে এ রকম তিন ধাপের মধ্যে ২ ধাপ টিকাদান কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়াও দেশ থেকে জলাতঙ্ক নির্মূলে সরকার স্বাস্থ্য বিভাগের মাধ্যমে বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে।