শেরপুরে ডিবি পুলিশের পৃথক অভিযানে ইয়াবা ও ভারতীয় মদসহ গ্রেফতার ৩

167

জিএইচ হান্নান: শেরপুর জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশ পৃথক দুটি অভিযান চালিয়ে ঝিনাইগাতী উপজেলার সারিকালীনগর গ্রামে ২ আগস্ট সোমবার বিকেলে ৩০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ মোঃ হাসমত আলী (৩৫) এবং সোমবার গভীর রাতে শ্রীবরদী উপজেলার সীমান্তঘেষা মেঘাদল গ্রামে মুক্কারুল মিয়া (২৬) ও জুলমান হাসান (২০) নামে দুই মাদক ব্যবসায়ীকে তিন বোতল ভারতীয় অফিসার চয়েজ ব্র্যান্ডের মদসহ ওই তিন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে।

ধৃত মাদক ব্যবসায়ীরা হলো- ঝিনাইগাতী উপজেলার সারিকালীনগর গ্রামের সওদাগর আলীর ছেলে মোঃ হাসমত আলী, শ্রীবরদী উপজেলার বাবেলা কোনা গ্রামের নূর মোহাম্মদ ফকিরের ছেলে মুক্কারুল মিয়া ও একই উপজেলার মেঘাদল গ্রামের জামরুল মিয়ার ছেলে জুলমান হাসান।

ডিবি পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, এক গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ডিবির উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোঃ আজিজুল হাসান, সহকারি উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মঞ্জুরুল ইসলাম, মাসরুক সিদ্দিকী, মাহবুবুর রহমান, সাইফুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঝিনাইগাতী উপজেলার সারিকালীনগর গ্রামে সোমবার বিকেলে অভিযান চালায়। এসময় দক্ষিণ বন্দভাটপাড়া গ্রাম থেকে মাদক ব্যবসায়ী মোঃ হাসমত আলীকে আটক করা হয়। পরে তার দেহ তল্লাশী করে ৩০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।

অপরদিকে ডিবি পুলিশের ওইদলটি মঙ্গলবার রাত দেড়টার দিকে শ্রীবরদী উপজেলার সীমান্তঘেষা মেঘাদল গ্রামে অভিযান চালায়। এসময় মেঘাদল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে তিন বোতল ভারতীয় অফিসার চয়েজ ব্র্যান্ডের মদসহ মুক্কারুল মিয়া ও তার সহযোগি জুলমান হাসানকে আটক করা হয়।

এব্যাপারে ধৃত মাদক ব্যবসায়ী হাসমত আলীর বিরুদ্ধে ঝিনাইগাতী থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। অপরদুই মাদক ব্যবসায়ী মুক্কারুল মিয়া ও জুলমান হাসানের বিরুদ্ধে শ্রীবরদী থানায় ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ২৫ (খ) ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে ডিবির ওসি মোঃ রেজাউল হক সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। ৩ আগস্ট মঙ্গলবার দুপুরে ধৃত মাদক ব্যবসায়ীদের আদালতে সোপর্দ করেছে পুলিশ।

Advertisement
Print Friendly, PDF & Email
sadi