শেরপুরে নিখোঁজের একদিন পর শিশুর লাশ উদ্ধার

222

জিএইচ হান্নান : শেরপুর জেলার সদর উপজেলার চরপক্ষীমারী ইউনিয়নের ব্রহ্মপুত্র সেতুর নিচ থেকে নিখোঁজের একদিন পর ৩ এপ্রিল শনিবার বিকেল ৩টায় আরাফাত (৮) নামে এক শিশুর লাশ উদ্ধার করেছে শেরপুর সদর থানার পুলিশ। শিশু আরাফাত সদর উপজেলার নন্দিরজোত পোড়ার দোকান এলাকার জনৈক আঃ মোতালেবের ছেলে। সে স্থানীয় একটি মাদ্রাসার শিক্ষার্থী ছিল। এদিকে আরাফাতের মামা সিয়াম (১০) এখনও নিখোঁজ রয়েছে। সিয়াম রামেরচর গ্রামের জনৈক আকবর আলীর ছেলে।

পুলিশ ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, শিশু আরাফাত ২ এপ্রিল শুক্রবার বিকেলে তার মামা সিয়াম (১০) এর সাথে পার্শ্ববর্তী ১১নং বলাইরচর ইউনিয়নের রামেরচর গ্রামের নানা বাড়ি যাওয়ার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হয়। এরপর রাতেও সে তার নানার বাড়ি না পৌঁছালে তাকে খোঁজাখুঁজি শুরু করে পরিবারের লোকজন। পরে শনিবার বিকেলে স্থানীয় এলাকাবাসী শেরপুর-জামালপুর ব্রহ্মপুত্র সেতুর নিচে এক শিশুর লাশ দেখতে পেয়ে ৯৯৯-এ ফোন দেয়।

খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোহাম্মদ হান্নান মিয়া, সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন ও উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. মোস্তাফিজুর রহমান সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থল গিয়ে লাশ উদ্ধার করে। এদিকে শিশু আরাফাতের আত্মীয়-স্বজনেরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থল গিয়ে আরাফাতের লাশ শনাক্ত করেন। পরে নিহত শিশুর লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি শেষে ময়নাতদন্তের জন্য শেরপুর জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়।

অপরদিকে শিশু সিয়ামের খোঁজ না মেলায় শেরপুর ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল গিয়ে ব্রহ্মপুত্র নদে খোঁজাখুঁজি শুরু করেছে। তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তারও কোন খোঁজ মেলেনি।

এব্যাপারে শেরপুর সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, শিশু আরাফাতের লাশ উদ্ধারের ঘটনায় শেরপুর সদর থানায় আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।