শেরপুরে পৃথক ধর্ষণ মামলায় ২জনের যাবজ্জীবন

122

শেরপুরে পৃথক ২টি ধর্ষণ মামলায় দুজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার এই দুটি দন্ডাদেশ দেয়া হয়। দুপুরে শিশু আদালত এবং নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালের আলাদা দুটি রায়ে ৯ম শ্রেণির শিক্ষার্থী কিশোরীকে ধর্ষন, অপর মামলায় প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণের দায়ে ২ জনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ডের রায় শোনান যথাক্রমে শিশু আদালতে বিচারক অতিরিক্ত জেলা জজ মোসলেহ উদ্দিন এবং নারী ও শিশু ট্রাইবুনালের ভারপ্রাপ্ত বিচারক জেলা জজ কিরণ শংকর হালদার।
মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৪ সালের ১৪ জুলাই শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার নবম শ্রেণির পড়–য়া কিশোরীকে শ্রীবরদী উপজেলার গোপালখিলা গ্রামের যুবক জবেদ আলী জামান অপহরণ করে। পরে একটি বাড়ীতে আটকে রেখে ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করে সে।
অপর ঘটনায় ২০০৮ সালে ২ জুন নকলা উপজেলার বাউসা গ্রামের দৃষ্টি প্রতিবন্ধী এক কিশোরীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রতিভেশী মিজান নামে এক বখাটে ধর্ষণ করে। পরে কিশোরী অন্তঃসত্বা হয় এবং একটি শিশুর জন্ম দেয়। শিশুটির ডিএনএ টেস্টে মিজানই ওই সন্তানের পিতা বলে প্রমানিত হয়। এই মামলায় আদালত মিজানকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দেন। একই সাথে শিশুটির ২১ বছর পর্যন্ত ভরণপোষণের দায়িত্ব সরকারকে পালনের জন্য নির্দেশ প্রদান করেন আদালত।

Advertisement
Print Friendly, PDF & Email
sadi