শেরপুরে সদর উপজেলা আ.লীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান আমির আলীর দাফন সম্পন্ন

82

জিএইচ হান্নান : শেরপুর জেলার সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বাজিতখিলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আমির আলী সরকারের প্রথম জানাজার নামাজ ১৯ আগস্ট বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় বাজিতখিলা আমির আলী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এবং দ্বিতীয় জানাজার নামাজ তার গ্রামের বাড়ি প্রতাবিয়ায় দুপুর ২টা ৩০ মিনিটে অনুষ্ঠিত হয়। জানাজার নামাজ শেষে আমির আলী সরকারকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

তার পরিবার সূত্রে জানা গেছে, চেয়ারম্যান আমির আলী সরকার বেশ কিছুদিন ধরে লিভার ও কিডনিসহ নানা শারীরিক অসুস্থতায় ভুগছিলেন। সর্বশেষ তিনি লিভার ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে রাজধানী ঢাকার শমরিতা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। ওই অবস্থায় গত ১১ আগস্ট বুধবার তাকে নিজ গ্রামের বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। এরপর হঠাৎ চেয়ারম্যান আমির আলী সরকারের অক্সিজেন সমস্যা দেখা দিলে তাকে শেরপুর জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে ১৮ আগস্ট বুধবার সন্ধ্যা ৭ টা ৩০ মিনিটে শেরপুর জেলা সদর হাসপাতালে তিনি ইন্তেকাল করেন।

সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি, বর্ষীয়ান নেতা ও বাজিতখিলা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আমির আলী সরকারের প্রথম জানাজার নামাজে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের হুইপ ও শেরপুর জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আতিউর রহমান আতিক এমপি, জেলা প্রশাসক মোঃ মোমিনুর রশীদ, স্থানীয় সরকার উপ-পরিচালক (উপ-সচিব) এটিএম জিয়াউল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট চন্দন কুমার পাল পিপি, শেরপুর পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব গোলাম মোহাম্মদ কিবরিয়া লিটন, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ ফিরোজ আল মামুন, নালিতাবাড়ী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো: মোকছেদুর রহমান লেবু, ঝিনাইগাতী উপজেলা পরিষদ এস.এম. আব্দুল্লাহেল ওয়ারেজ নাইম, শেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ফখরুল মজিদ খোকন, দপ্তর সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন, শহর আওয়ামী লীগ সভাপতি এডভোকেট আবুল কাশেম জিপি, সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ দত্ত, সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি তদন্ত) বন্দে আলী মিয়া, জেলা যুবলীগের সভাপতি ও কামারেরচর ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব হাবিবুর রহমান হাবিব, পাকুড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ হায়দার আলীসহ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মী, এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ কয়েক হাজার মুসুল্লি অংশগ্রহণ করেন।

পরে দ্বিতীয় দফা জানাজা নামাজ শেষে তার গ্রামের বাড়ি প্রতাবিয়ায় পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

Advertisement
Print Friendly, PDF & Email
sadi