শেরপুরে ২৪ ঘণ্টা কাজ করছে ইমার্জেন্সি অক্সিজেন টিম

95

জাহিদুল খান সৌরভ : শেরপুর জেলা শহরে ২৪ ঘণ্টা কাজ করছে ইমার্জেন্সি অক্সিজেন টিম। যাদের মধ্যে শেরপুর ইমার্জেন্সি অক্সিজেন ব্যাংক ও ফ্রি অক্সিজেন সার্ভিস অন্যতম। এই দুটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন দিন রাত ২৪ ঘণ্টা কাজ করছে।

সংগঠন দুটির ফেইসবুক পেইজ থেকে জানা গেছে, সাধারণ শ্বাসকষ্ট বা করোনা রোগী যারা হোম আইসোলেশনে আছেন। তাদের জরুরী মুহুর্তে বিনামূল্যে অক্সিজেন সেবা পেতে নির্ধারিত হট লাইন নাম্বারে যোগাযোগ করার অনুরোধ করা হয়েছে। শুধু তাই নয় যাদের করোনা উপসর্গ রয়েছে তারাও অক্সিমিটার দিয়ে অক্সিজেনের পালস নিরুপন করতে পারবে একদম বিনামূল্যে। এজন্য সংগঠনটির হটলাইন নাম্বারে কল দিলে জরুরী সেবা নিয়ে মুহুর্তেই ঘরের দুয়ারে পৌছে যাবে স্বেচ্ছাসেবীরা।

শেরপুর ইমার্জেন্সি অক্সিজেন ব্যাংক সংগঠনের সমন্বয়ক বলেন, আমরা প্রাথমিকভাবে ৭ টি অক্সিজেন সিলিন্ডার, ২০০ অক্সিজেন মাস্ক ও ৮০ টি অক্সিমিটার নিয়ে যাত্রা শুরু করেছি। গত ১৩ জুলাই থেকে আমাদের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু। এ পর্যন্ত আমরা ১৭ জন শ্বাসকষ্ট ও করোনায় আক্রান্ত রোগীকে সেবা দিয়েছি। শেরপুর পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব গোলাম মোহাম্মদ কিবরিয়া লিটন ১ লক্ষ টাকা, জেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা এবং কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মুজাহিদুল ইসলাম সোহাগ ৮০ টি অক্সিমিটার দিয়েছেন এ সংগঠনকে।

এব্যাপারে শেরপুর পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব গোলাম মোহাম্মদ কিবরিয়া লিটন জানান, করোনা মহামারীর এই সময়ে শেরপুর জেলাবাসীর জন্য জরুরী অক্সিজেন সেবা খুবই প্রয়োজন ছিল। কারণ এতে করে করোনা আক্রান্ত রোগীরা বাসায় বসে জরুরী অক্সিজেন সেবা নিতে পারবে। আমরা শেরপুর পৌরসভার পক্ষ হতে অক্সিজেন ব্যাংকের জন্য ১ লক্ষ টাকা অনুদান ঘোষণা করেছি। আমি চাইবো এরকম আরও সংগঠন যেন অন্য ৪ উপজেলায় গঠন করা হয়।