শ্রীবরদীতে গৃহবধূ ধর্ষণ মামলায় ইউপি সদস্য আন্ডা গ্রেফতার

73

তাসলিম কবির বাবু : শেরপুর জেলার শ্রীবরদী উপজেলাতে গৃহবধূ ধর্ষণ মামলায় এজাহার নামীয় আসামী ইউ.পি সদস্য রফিকুল ইসলাম আন্ডাকে গ্রেফতার করেছে শ্রীবরদী থানার পুলিশ। ১৫ জুলাই বৃহস্পতিবার দুপুরে শ্রীবরদী তাতীহাটি ইউনিয়ন থেকে তাকে আটক করা হয়। রফিকুল ইসলাম ওরফে আন্ডা উপজেলার তাতীহাটি ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের ইউ.পি সদস্য ও বকচর পশ্চিমপাড়া গ্রামের মৃত আ: জলিলের ছেলে।

পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূর বাবা ঈদে গরু বিক্রির করার জন্য ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হয়। এ সুযোগে ১৪ জুলাই বুধবার রাত অনুমান ২টার দিকে মনিমুক্তা ওরফে মনির দরজার বাধ কেটে গৃহবধূর ঘরে প্রবেশ করে। এসময় ঘুমন্ত অবস্থায় গৃহবধূর মুখে গামছা বেধে জোর পূর্বক তাকে ধর্ষণ করে। একপর্যায়ে গৃহবধূ ডাক-চিৎকারে  এলাকাবাসী ঘটনাস্থল গিয়ে মনিমুক্ত ওরফে মনিরকে আটক করে। পরে ইউপি সদস্য গ্রাম্য শালিস করার সময় শালিসকারীদের সহযোগিতায় ধর্ষণকারী মনিমুক্তা ঘটনাস্থল থেকে কৌশলে পালিয়ে যায়। এঘটনায় ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূ নিজেই বাদী হয়ে ধর্ষক মনিমুক্ত ওরফে মনিরকে প্রধান আসামী করে অপরাপর সহযোগিদের নামে শ্রীবরদী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

এব্যাপারে শ্রীবরদী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বিপ্লব কুমার বিশ্বাস সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ মামলার এজাহারভূক্ত আসামী ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম ওরফে আন্ডাকে গ্রেফতার করে বৃহস্পতিবার দুপুরে আদালতে সোর্পদ করা হয়েছে। এ মামলার অপরাপর আসামীদেরকে গ্রেফতারের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।