সাকিবের জোড়া আঘাত

24

ইনিংসের ১৮তম ওভারে বল হাতে দলকে জোড়া সাফল্য এনে দিলেন সাকিব আল হাসান। সাকিবের স্পিনে ব্যক্তিগত ৪৬ রানে এলবিডাব্লিউর ফাঁদে পড়েন প্রোটিয়া ওপেনার কুইন্টন ডি কক। ওভারের পরের বলেই প্রোটিয়া অধিনায়ককে শুন্য রানে সরাসরি বোল্ড করেন সাকিব।  দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে টানা চতুর্থ ম্যাচে টস জিতলো বাংলাদেশ। এবার টস জিতে ফিল্ডিং বেছে নিলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। তবে টাইগারদের ভোগান্তির চিত্রটা বদলায়নি এতে। পার্লে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ১৮ ওভারে ওপেনিং জুটিতে দক্ষিণ আফ্রিকার স্কোর বোর্ডে জমা পড়ে ৯০ রান।   সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে স্বাগতিকরা বাংলাদেশের দেয়া ২৭৯ রানের টার্গেট পার করে কোনো উইকেট না হারিয়েই।

বাংলাদেশে দলের ফিরেছেন ওপেনার তামিম ইকবাল। ইনজুরির কারণে সিরিজের প্রথম ওয়ানডে খেলতে পারেননি তামিম। একাদশ থেকে বাদ পড়েছেন আগের ম্যাচে বাংলাদেশের ক্যাপ মাথায় ওয়ানডে অভিষেক হওয়া মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। প্রথম ওয়ানডেতে হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পেয়েছিলেন সেঞ্চুরিয়ান মুশফিকুর রহীম। তবে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে দিনি খেলছেন যথারীতি। আর উইকেটরক্ষকের গ্লাভসও ফিরে পেয়েছেন মুশফিক। সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে উইকেটরক্ষকের গ্লাভস সামলান লিটন কুমার দাস। এর সিরিজের দুই টেস্টে টস জেতেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম। আর প্রথম ওয়ানডেতে টস জিতে ব্যাটিং বেছে নিয়েছিলেন ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। পচেফস্ট্রমে সিরিজের প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে ওপেনিংয়ে ১৯৬ রানের জুটি গড়ে প্রোটিয়ারা। আর দ্বিতয়ি টেস্টের একমাত্র ইনিংসে সেঞ্চুরি হাঁকান দক্ষিণ আফ্রিকার চার ব্যাটসম্যান। বাংলাদেশ ওই ম্যাচে র্হা দেখে ইনিংস ও ২৫৪ রানে। আর সিরিজের প্রথম টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকা জয় কুড়ায় ওপেনিং জুটিত রেকর্ড গড়ে। ডায়মন্ড ওভালে ৭.১ ওভার হাতে রেখেই দক্ষিণ আফ্রিকার সংগ্রহ পৌঁছে ২৮২/ তে। ওয়ানডেতে কোনো উইকেট না হারিয়ে সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ড এটি। আগের রেকর্ডে গত বছর বার্মিংহামে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২৫৫ রান তাড়া করে ১০ উইকেটের জয় দেখেছিল ইংল্যান্ড।