সালিশের পক্ষে মাইকেল ক্লার্কও “নিজেদের জন্যই আমাদের বাংলাদেশ সফর দরকার”

26

বেতন-ভাতা নিয়ে বোর্ড-খেলোয়াড় দ্বন্দ্বের অবসানে সালিশের পক্ষে মত দিলেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক। গতকাল মাইকেল ক্লার্ক বলেন, একজন সাবেক খেলোয়াড় হিসেবে আমি চাইবো সোমবারের মধ্যে কোনো সমাধান না হলে সালিশে বসুক দু’পক্ষ। কারণ এর মীমাংসা হওয়া দরকার। মাইকেল ক্লার্ক বলেন, আমাদের বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলতে হবে। ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের পর খেলতে হবে নিজ মাটিতে অ্যাশেজ সিরিজ। সিরিজগুলোতে ভালো কিছু পেতে চাইলে আমাদের একটি দল হিসেবে খেলতে হবে। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে আগামী ১৮ই আগস্ট বাংলাদেশের উদ্দেশে দেশ ছাড়ার কথা অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের। তবে বেতন-ভাতা নিয়ে বোর্ড-খেলোয়াড় দ্বন্দ্বে অনিশ্চয়তায় রয়েছে সিরিজটি। গত বৃহস্পতিবার অজি বোর্ড ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার (সিএ) প্রধান নির্বাহী জেমস সাদারল্যান্ড বলেন, আলোচনায় ৭ দিনের মধ্যে সমাধান না পেলে সালিশ ডাকবে সিএ। এতে একজন অবসরপ্রাপ্ত বিচারকের অধীনে সালিশে বসতে চায় তারা। তবে বোর্ডের এমন ভাবনায় দ্বিমত জানায় খেলোয়াড় সংস্থা অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার্স এসোসিয়েশন (এসিএ)। এসিএ প্রধান নির্বাহী অ্যালিস্টার নিকলসন বলেন, সালিশে বসার প্রয়োজন নেই কারণ এটা বিচারিক কোনো বিষয় নয়। গতকাল মাইকেল ক্লার্ক বলেন, আমি মনে করি বিষয়টি সালিশের দিকেই যাচ্ছে। আর সালিশে না বসতে চাওয়াটা এসিএ-এর বোকামি হবে। খেলোয়াড়রা ‘না’ বলতে পারে না। খেলোয়াড়দের অবশ্যই এতে সম্মত হতে হবে কারণ খেলা চালিয়ে যেতে হবে তাদের। অস্ট্রেলিয়ার সফল অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক বলেন, খেলোয়াড়রা কোনো ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নির্বাহী নয়। তাদের কর্মও তেমন নয়। সিএ ও খেলোয়াড় সংগঠনের মধ্যে বিষয়টির মীমাংসা হওয়া দরকার। আর খেলোয়াড়দের মনোযোগটা থাকা দরকার খেলার দিকেই। চলতি সপ্তাহেই ফের বৈঠক করবেন সিএ কর্তা জেমস সাদারল্যান্ড ও এসিএ নির্বাহী অ্যালিস্টার নিকলসন। এতে সুরাহা না হলে সালিশে বসবে দু’পক্ষ। এমন সম্ভাবনা সামনে রেখে মাইকেল ক্লার্ক এর আগে সামাজিক মাধ্যমে টুইট করেন, ‘খেলোয়াড়রাই জিতবে’। বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট মাঠে গড়াবে আগামী ২৭শে আগস্ট।