স্মিথকে ছুঁলেন আমলা

27

গর্বের এক রেকর্ডে সাবেক প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান গ্রায়েম স্মিথকে স্পর্শ করলেন হাশিম আমলা। পচেফস্ট্রমে গতকাল বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে রান উৎসব জারি রাখে প্রোটিয়া ব্যাটসম্যানরা। ওপেনার ডিন এলগারের পর সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন ওয়ানডাউন ব্যাটসম্যান হাশিম আমলা। আগের দিন অল্পের জন্য সেঞ্চুরি মিস করেন দক্ষিণ আফ্রিকার অভিষিক্ত ওপেনার এইডেন মার্করাম। ব্যক্তিগত ৯৭ রানে মার্করামের উইকেট কাটা পড়ে রানআউটে। টেস্ট অভিষেকে ব্যক্তিগত ৯০ রানের কোটায় রানআউটে উইকেট খোয়ানো মাত্র তৃতীয় ব্যাটসম্যান এইডেন মার্করাম। এর আগের এমন নজির ছিল ১৯৮৪-তে পাকিস্তানের আবদুল কাদের ও ১৯৭৪-এ ওয়েস্ট ইন্ডিজের গর্ডন গ্রিনিজের। পচেফস্ট্রমের সেনওয়েস পার্ক মাঠে গতকাল ম্যাচের দ্বিতীয় দিনে আমলা তিন অঙ্কের ঘরে পৌঁছেন মাত্র ১৪৩ বলে। এতে আমলা হাঁকান ১১টি চার ও একটি ছক্কা। ১০৮ ম্যাচের টেস্ট ক্যারিয়ারে হাশিম আমলার এটি ২৭তম শতক। টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকার সর্বাধিক সেঞ্চুরির রেকর্ডে সাবেক ওপেনার গ্রায়েম স্মিথকে স্পর্শ করলেন তিনি। দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাট হাতে টেস্টে সর্বাধিক ৪৫ সেঞ্চুরির রেকর্ডটি সাবেক ব্যাটসম্যান জ্যাক ক্যালিসের। পচেফস্ট্রমে আগের দিন ৬৫ রানে অপরাজিত ছিলেন হাশিম আমলা। আর দক্ষিণ আফ্রিকা দিনের খেলা শেষ করেছিল ২৯৮/১ সংগ্রহ নিয়ে। গতকাল ব্যক্তিগত ১৩৭ রানের উইকেট দেন আমলা। কাঁটায় কাঁটায় ২০০ বলের ইনিংসে আমলা হাঁকান ১৭টি চার ও একটি ছক্কা। দ্বিতীয় উইকেটে ২১৫ রানের জুটি গড়েন এলগার-আমলা। টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকার দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে এটি সপ্তম সর্বাধিক রানের রেকর্ড। বাংলাদেশের বিপক্ষে আমলার ২০০ রানের জুটির দ্বিতীয় ঘটনা এটি। ২০০৮‘র সিরিজে ব্লুমফন্টেইনে ওপেনার গ্রায়েম স্মিথের সঙ্গে দ্বিতীয় উইকেটে ২২৫ রানের জুটি গড়েন হাশিম আমলা।