১০০ কোটি রুপি নিয়ে ভারতের বিপক্ষে মামলায় নামছে পাকিস্তান

26

চুক্তি অনুযায়ী দ্বিপাক্ষিক সিরিজ না খেলায় এবার সত্যি সত্যিই ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিআইসি) বিরদ্ধে মামলায় নামছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। বিষয়টি নিয়ে এতদিন হুমকি দিয়ে আসছিল পিসিবি। তবে এখন আর সেটা হুমকিতে সীমাবদ্ধ নেই। সত্যি সত্যিই বিসিসিআই’র বিপক্ষে মামলা করার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছে পিসিবি। এই মামলা সহজ হবে না ভেবেই ১০০ কোটি রুপির তহবিল গড়ছে পাকিস্তান। এ বিষয়ে তারা একটি বৃটিশ আইনী পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের সহায়তা নিচ্ছে। এ বিষয়ে পিসিবি’র চেয়ারম্যান শাহরিয়ার খান এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ‘ভারতের বিপক্ষে আইনি পদক্ষেপ নিতে একটি বৃটিশ আইন পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের সহায়তা নিচ্ছে পাকিস্তান। চুক্তি অনুযায়ী ভারত আমাদের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সিরিজ না খেলায় আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি। এ কারণেই এই মামলা। আইসিসি’র দ্বন্দ্ব নিষ্পত্তি কমিটিতে এই মামলা দায়ের করা হবে।’ ২০১৪ সালে ভারতের সঙ্গে পাকিস্তানের যে সমঝোতা স্মারক সই হয়েছিল। সেখানে ২০১৫ থেকে ২০২৩ সালের মধ্যে কমপক্ষে ৬টি দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলার কথা ছিল। তার চারটি হওয়ার কথা ছিল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) আয়োজনে। সেটা পাকিস্তানের মাটিতে কিংবা নিরপেক্ষ কোনো ভেন্যুতে হতে পারে। কিন্তু দুই দেশের রাজনৈতিক সম্পর্কের অবনতি হওয়ায় এই সমঝোতা স্মারকে প্রভাব ফেলে। ভারত সাফ জানিয়ে দেয়, সরকারের অনুমতি ছাড়া পাকিস্তানের বিপক্ষে কোনো দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলা সম্ভব নয়। ভারতের সরকারও পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলার অনুমতি দেয়নি। এ কারণে এখনো একটি দ্বিপাক্ষিক সিরিজও হয়নি। এতে বড় ধরনের আর্থিক ক্ষতির মুখে ফেলেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডকে। ইতিমধ্যে পিসিবি সাত কোর্টি মার্কিন ডলার ক্ষতিপূরণ চেয়ে বিসিসিআইকে চিঠি দিয়েছে। কিন্তু সে চিঠির কোনো জবাব পায়নি পিসিবি। এতে এখন মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে তারা। চুক্তি অনুযায়ী দল দু’টি দ্বিপাক্ষিক সিরিজে মুখোমুখি না হলেও ইতিমধ্যে আইসিসি’র বৈশ্বিক টুর্নামেন্টে মুখোমুখি হয়েছে তারা। সম্প্রতি আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে দুইবার মুখোমুখি হয় তারা। গ্রুপপর্বে পাকিস্তানকে বড় ব্যবধানে হারায় ভারত। কিন্তু ফাইনালে ভারতকে বড় ব্যবধানে হারিয়ে শিরোপা জেতে পাকিস্তান। দুই ম্যাচেই স্টেডিয়াম ছিল দর্শকে কানায় কানায় পূর্ণ।