১৩ বছর পর বায়ার্নের এমন পরিণতি

30

জার্মানির বুন্দেসলিগায় ১৩ বছর পর লজ্জার এক ফলাফল দেখলো বায়ার্ন মিউনিখ। অ্যালিয়েঞ্জ অ্যারেনায় শুক্রবার তারা স্বাগত জানায় ভল্ফসবুর্গকে। ম্যাচের প্রথমার্ধে তারা ২-০ গোলে এগিয়ে ছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তাদের মাঠ ছাড়তে হয় ২-২ ড্র নিয়ে। পয়েন্ট টেবিলের ১১তম স্থানে থাকা দলটির কাছে পয়েন্ট খোয়ায় তারা। এতে ১৩ বছর পর নিজেদের মাঠে প্রথমার্ধে ২-০ গোলে এগিয়ে থেকেও শেষ পর্যন্ত পয়েন্ট খোয়াতে হলো তাদের। এর আগে সর্বশেষ তারা এমন লজ্জায় পড়ে ২০০৪ সালে। এছাড়া ১৬ বছর পর ভল্ফসবুর্গের বিপক্ষে নিজ মাঠে পয়েন্ট খোয়ালো বায়ার্ন। এই ক্লাবটির বিপক্ষে অ্যালিয়েঞ্জ অ্যারেনায় সর্বশেষ পয়েন্ট খোয়ায় ২০০১ সালে। সেবার ম্যাচটি ৩-৩ গোলে ড্র হয়। অন্যদিকে ২০১৪ সালের পর এই প্রথম কোনো দল বায়ার্নের মাঠে তিন পয়েন্ট খোয়ায়নি। এই ড্রয়ের ফলে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠতে ব্যর্থ হলো বায়ার্ন মিউনিখ। ৬ ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট তাদের। আর ৫ ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে বরুসিয়া ডর্টমুন্ড।
আলিয়েঞ্জ অ্যারেনায় এদিন শুরু থেকেই পরীক্ষা দিতে হয় ভল্ফসবুর্গকে। অবশ্য ৩৩ মিনিট পর্যন্ত অবশ্য জার্মান চ্যাম্পিয়নদের আটকে রাখে তারা। কিন্তু ৩২ মিনিটে ভল্ফসবুর্গের এক খেলোয়াড় নিজেদের বক্সের ভেতর রবার্ত লেওয়ানদোস্কিকে ফাউল করলে রেফারি বাজান পেনাল্টির বাঁশি। স্পট কিক থেকে বায়ার্নকে এগিয়ে দেন লেওয়ানদোস্কি। ভল্ফসবুর্গের বিপক্ষে পোলিশ স্ট্রাইকার ১৪ ম্যাচে পান ১৫তম গোল। আর বায়ার্নের হয়ে চলতি মৌসুমে ৯ ম্যাচে এটি তার ১১তম গোল। এরপর বিরতিতে যাওয়ার আগেই স্বাগতিকরা ব্যবধান দ্বিগুণ করে। ৪২ মিনিটে গোল করেন আরিয়েন রোবেন। বক্সের সামান্য বাইরে থেকে ডাচ উইঙ্গারের নেয়া শট রাফিনহার গায়ে লেগে জড়িয়ে যায় জালে।
২-০ ব্যবধানে গিয়ে বিরতিতে যাওয়ার পর দ্বিতীয়ার্ধে ধরা খায় বায়ার্ন মিউনিখ। ৫৬ মিনিটে ব্যবধান কমান আর্নল্ড। আর ম্যাচের শেষ বাঁশি বাজার ৭ মিনিট আগে সফরকারী ফল্ফসবুর্গকে ২-২ এ সমতায় ফেরান দিভাবি।